মেইন ম্যেনু

৫৬ হজ এজেন্সির বিরুদ্ধে মানব পাচারের অভিযোগ

ওমরাহ এজেন্সির মাধ্যমে সৌদি আরবে গিয়ে আর দেশে ফেরেননি প্রায় ৬ থেকে ৭ হাজার মানুষ। ৫৬টি হজ এজেন্সির মাধ্যমে এরা সৌদি আরবে গিয়েছেন বলে অভিযোগ করেছে সৌদি আরবের হজ এজেন্সিগুলো।

সোমবার সচিবালয়ে ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা জানান ধর্মমন্ত্রী অধ্যক্ষ মতিউর রহমান।

ধর্মমন্ত্রী জানিয়েছেন, সাম্প্রতিক সময়ে সৌদিআরবের ওমরাহ এজেন্সিগুলো বাংলাদেশের কতগুলো ওমরা এজেন্সির বিরুদ্ধে তাদের ওমরাহ যাত্রীদের দেশে ফিরে না আসার তথা মানব পাচারের অভিযোগ তুলেছে।

মন্ত্রী জানান, এ বিষয়টি দেশের ভাবমূর্তি নষ্ট করেছে। এর ফলে প্রকৃত ওমরা পালনকারীদের ওমরাহ পালন বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। কারণ সৌদি কর্তৃপক্ষ সাময়িক সময়ের জন্য ওমরা ভিসা ইস্যু বন্ধ রেখেছে।

বিষয়টি নিয়ে মন্ত্রী বেশ বিব্রত ও ক্ষুব্ধ বলেও তিনি জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন, ‘এ অবস্থা চলতে দেয়া যায় না। এসব হজ এজেন্সির বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেয়ার প্রক্রিয়া চলছে। তাদের লাইসেন্স বাতিল ও জামানত বাজেয়াপ্ত করা হবে। তাদের বিরুদ্ধে মামলাও করা হবে। তারা যতই শক্তিশালী হোক না কেন, কোনো প্রকার ছাড় দেয়া হবে না।’

তিনি আরো জানান, খুব দ্রুততম সময়ে পুনরায় ওমরাহ ভিসা চালু করার চেষ্ট চলছে। শিগগিরই ওমরাহ ভিসা আবার চালু হবে বলেও তিনি আশা প্রকাশ করেন।

বিভিন্ন দুর্নীতির সঙ্গে মন্ত্রীর ছেলে জড়িত আছে এমন অভিযোগের কথা জানালে তিনি বলেন, ‘আমার ছেলে জড়িত আছে এমন প্রমাণ এনে দেন। আমি ৭ দিনের মধ্যে ব্যবস্থা নিবো।’