মেইন ম্যেনু

৫ দিন লড়ে না ফেরার দেশে দগ্ধ শিশু রমজান

টানা পাঁচ দিন বার্ন ইউনিটে মৃত্যু সাথে পাঞ্জা লড়ে অবশেষে হার মানল দগ্ধ শিশু রমজান (৮)। নিহতের মা জানান, রমজানকে তার সমবয়সী এক ছেলে ছাদে নিয়ে গায়ে কেমিক্যাল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দেয়।

মা রাজিয়া বেগম জানান, তাদের বাড়ি পটুয়াখালীর গলাচিপায়। রাজধানীর যাত্রাবাড়ির ভাঙা প্রেস এলাকায় থাকেন তারা। তার স্বামীর মৃত আনোয়ার আলী। একটি পোশাক কারখানায় কাজ করেন তিনি।

গত ২৪ জানুয়ারি বিকেল সাড়ে ৪টায় কালু নামের এক ছেলে রমজানের গায়ে কেমিকেল দিয়ে আগুন ধরিয়ে দেয় বলে দাবি করেন তিনি। তবে ঠিক কী কারণে ছেলের গায়ে আগুন ধরিয়ে দেয়, তা জানাতে পারেননি তিনি।

এর পরই তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়। শুক্রবার (২৯ জানুয়ারি) সকাল সাড়ে ৭টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় দগ্ধ রমজানের মৃত্যু হয়।

চিকিৎসকরা জানান, নিহত রমজানের শরীরের ৩৬ শতাংশই পুড়ে গিয়েছিল। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে।