মেইন ম্যেনু

৫ বিদেশি সমুদ্র বন্দর পরিদর্শনে সংসদীয় দল

বিশ্বের সমুদ্র বন্দর পরিদর্শনে উপর অভিজ্ঞতা অর্জনের জন্য নৌপরিবহন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির একটি প্রতিনিধিদল আজ মঙ্গলবার রাত ৯ টায় মরিশাসের উদ্দেশে ঢাকা ত্যাগ করবেন।

বিশ্বের বিভিন্ন সমুদ্র বন্দরের অবকাঠামো ও অপারেশনাল কার্যক্রম এবং বন্দরের কার্গো হ্যান্ডলিং, শ্রমিক ব্যবস্থাপনা, বন্দরের নাব্য রক্ষার কৌশল ও সার্বিক কার্যক্রম সম্পর্কে বাস্তব জ্ঞান লাভ ও অভিজ্ঞতা অর্জন করবেন। এ সময় তারা মরিশাস, মিশরের আলেকজান্দ্রিয়া, যুক্তরাষ্ট্রের লস্ এঞ্জেল্স ও নিউইয়র্ক সমুদ্র বন্দর সরেজমিনে পরিদর্শন করবেন।

মঙ্গলবার নৌ-পরিবহন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র তথ্য কর্মকর্তা জাহাঙ্গীর আলম খানের দেয়া এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানা গেছে।

প্রতিনিধিদলে রয়েছেন, নৌপরিবহন মন্ত্রী শাজাহান খান, নৌপরিবহন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি মেজর (অব.) রফিকুল ইসলাম, সদস্য মো. আব্দুল হাই, এম আব্দুল লতিফ, মো. আনোয়ারুল আজীম (আনার), মো. নুরুল ইসলাম সুজন, চট্টগ্রাম বন্দর উপদেষ্টা কমিটির সদস্য ও
সংসদ সদস্য শামসুল হক চৌধুরী, চট্টগ্রাম বন্দর উপদেষ্টা কমিটির সদস্য ও চট্টগ্রাম সিটি মেয়র আ.জ.ম. নাসির উদ্দীন, চট্টগ্রাম বন্দরের চেয়ারম্যান রিয়ার এডমিরাল নিজামউদ্দিন আহমেদ, সদস্য (প্রকৌশল) কমডোর জুলফিকার আজিজ, মন্ত্রীর একান্ত সচিব এমএম তারিকুল ইসলাম এবং সভাপতির
একান্ত সচিব ড. দয়াল চাঁন মণ্ডল।

এ সফর বন্দরসমূহের উন্নয়ন পরিকল্পনা প্রণয়ন ও বাস্তবায়ন এবং সার্বিক ব্যবস্থাপনাগত কাজের দক্ষতা বৃদ্ধিতে সহায়ক হবে। এছাড়া প্রতিনিধিদল বিভিন্ন সমুদ্র বন্দরের বৈদেশিক বিনিয়োগ ও ব্যবস্থাপনা কার্যক্রম পর্যবেক্ষণ ও তথ্য সংগ্রহ করবে। এসব তথ্য দেশের সমুদ্র বন্দরসমূহের উন্নয়নের ক্ষেত্রে বৈদেশিক বিনিয়োগ আকর্ষণ এবং তার সুষ্ঠু বাস্তবায়নে সহায়ক ভূমিকা পালন করবে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা।

সফলভাবে পরিচালিত বন্দরের ব্যবস্থাপনা ও উন্নয়ন কর্মকাণ্ড সম্পর্কে প্রত্যক্ষ ধারণা লাভ এবং তা বাংলাদেশের বন্দর সমূহের উন্নয়ন ও ব্যবস্থাপনার ক্ষেত্রে প্রয়োগের জন্য প্রতিনিধিদলে মন্ত্রণালয়ের বন্দর সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা এবং চট্টগ্রাম বন্দরের কর্মকর্তারাও রয়েছে।

নৌপরিবহন মন্ত্রী মিশর থেকে ১১ নভেম্বর দেশে ফিরবেন বলে আশা করা যাচ্ছে।