মেইন ম্যেনু

৭১ বছরের বৃদ্ধাকে বিয়ে করল ১৬ বছরের কিশোর! (ভিডিও)

প্রেম কী বয়সের মাপকাঠিতে আটকে থাকে। কিংবা বয়সের ব্যবধান বেড়ে গেলে সম্ভব হয় না। মিথ ভাঙলেন ইন্দোনেশিয়ার এক দম্পতি। যাদের গল্প একেবারে ছকভাঙা। পাত্রের বয়স ১৬, আর পাত্রীর ৭১। পাত্রী বিধবা, এর আগে দুবার বিয়ে হয়েছে। ছেলের বয়স ১৯।

তৃতীয়বার বিয়ের পিঁড়িতে বসার সময় ৫৫ বছরের ব্যবধান মাথায় আনেননি। প্রেমের টানে পরিবারের বাধা পেরিয়ে রোহায়া বিয়ে করেছেন হাঁটুর বয়সি সালামাত রিয়াদিকে। মুসলিম প্রধান ইন্দোনেশিয়ায় অসমবয়সীদের এই বিয়ে নিয়ে এখন শোরগোল পড়েছে। ধর্মগুরুদের একাংশ প্রশ্নও তুলেছেন।

ফরাসি প্রেসিডেন্ট হওয়ার পর ইমানুয়েল ম্যাক্রনের দাম্পত্য জীবন নিয়ে আলোচনার শেষ নেই। কারণ, ইমানুয়েলের সঙ্গে তাঁর স্ত্রীর বয়সের তফাত ২৯ বছর। দুনিয়ার অনেক সেলিব্রেটিও অসম বয়সীর সঙ্গে প্রেমে পড়েছেন। বিয়েও করেছেন। তবে বয়সের তফাত ৫৫ বছর হয়নি।

দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় সেই নজির দেখা গেল। দক্ষিণ সুমাত্রার ১৬ বছরের সালামাত রিয়াদি সদ্য বিয়ে করেছেন তাঁর প্রেমিকাকে। পাত্রী ৭১ বছরের রোহায়া। তাঁদের প্রেম কাহিনি এবং বিয়ে পর্যন্ত সম্পর্ক গড়ানোর ঘটনা সিনেমার মতো। ৫৫ বছরের ব্যবধানের জন্য অনেক বাধা ছিল। কোনওভাবে সালামাত তার বাড়ির লোকজনকে রাজি করিয়েছিলেন।

কিন্তু বেঁকে বসে রোহায়ার পরিবার। রোহায়া ছিলেন বিধবা। এর আগে দুবার তাঁর বিয়ে হয়। ১৯ বছরের এক ছেলেও আছে রোহায়ার। তাঁর সবথেকে কাছের মানুষ ছিলেন দাদা। যিনি আশঙ্কা করেছিলেন ফের বিয়ে হলে পরিবারের লজ্জা বাড়বে। প্রথমে সালোয়ার ছেলের কাছে বিয়ের প্রস্তাব দিয়েছিলেন সালামাত। যা শুনে চমকে গিয়েছিলেন সালোয়া পুত্র।

গড়িমসির পর রাজি হলেও, সে জানিয়েছিল এই নিয়ে কয়েকজনের মতামত নেওয়া প্রয়োজন। এক ধর্মগুরুর কাছে যান সালামাত। তিনি জানিয়েছিলেন দুই পরিবারের সম্মতি থাকলে তাঁর আপত্তির কিছু নেই। তারপরও বেঁকে বসেন সালোয়ার দাদা। ফের ধর্মগুরুর দ্বারস্থ হয়ে ওই যুগল জানিয়ে দেয় বিয়ে না হলে তাঁরা আত্মঘাতী হবেন। বিয়েতে শেষ পর্যন্ত হাজির হন সালোয়ার দাদা রউফ।

ইন্দোনেশিয়ার সোশাল মিডিয়ার প্রেম থেকে বিয়ের পিঁড়িতে ওঠার এই কাহিনি এখন মুখে মুখে ফিরছে। সালামাত বিয়ের পর রোহায়ার বাড়িতে গিয়ে উঠেছে। তবে অনেকেই বাঁকা কথা বললেও, অধিকাংশই এই বিয়েকে সমর্থন করেছেন। ইন্দোনেশিয়ায় ছেলেদের বিয়ের বয়স ১৯, মেয়েদের ১৬। প্রেমের টানে কি নিয়ম ভাঙলেন না সালামাত। বছর দুয়েক পর তিনি আইনিভাবে বিয়ে করবেন না বলে জানিয়েছেন পাত্র।

তবে ইন্দোনেশিয়ায় এর আগেও এমন নজির রয়েছে। গত ফেব্রুয়ারিতে ৮২ বছরের এক বৃদ্ধ বিয়ে করেছিলেন ২৮ বছরের যুবতীকে। বয়স যে শুধু সংখ্যা, আর কয়েকটি উদাহরণের মতো সালমাতাদের বিয়েও সে কথাই প্রমাণ করল।

দেখুন সেই বিয়ের ভিডিও:






মন্তব্য চালু নেই