মেইন ম্যেনু

৮ টি কার্যকরী প্রাকৃতিক উপায়ে বৃদ্ধি করুন দেহের উচ্চতা !

সকলের ধারণা দেহের উচ্চতা বৃদ্ধি পুরোপুরি জেনেটিক্যাল ব্যাপার। কিন্তু গবেষণায় দেখা যায়, উচ্চতার উপরে জেনেটিক্যাল ব্যাপারের প্রভাব থাকলেও প্রায় ২০% প্রভাব থাকে আমাদের দৈনন্দিন জীবনযাপন, খাদ্যাভ্যাস, সঠিক শারীরিক ব্যায়াম ইত্যাদি। ছোটোবেলা থেকেই কিছু অভ্যাস এবং কার্যকলাপ আয়ত্ত করে নিতে পারলে জেনেটিক্যাল ব্যাপারটাকে অনেকাংশেই কাটিয়ে ফেলা সম্ভব। আজকে জেনে নিন প্রাকৃতিক উপায়ে উচ্চতা বাড়ানোর কার্যকরী দারুণ কিছু কৌশল।

১) সঠিক খাদ্যাভ্যাস

অপুষ্টির কারণে দেহের উচ্চতা বৃদ্ধি বাঁধা পায় সবচাইতে বেশি। তাই উচ্চতা বাড়ানোর জন্য আপনি কি খাচ্ছেন তার প্রতি কড়া নজর দেয়া উচিত। পুষ্টিকর এবং স্বাস্থ্যকর খাবার দেহের হাড় ও কোষের বৃদ্ধিতে সহায়তা করে। ভিটামিন ডি আমাদের দেহে গ্রোথ হরমোন উৎপন্ন করে, ক্যালসিয়াম হাড়ের গঠন এবং হাড় মজবুত করে, ম্যাগনেসিয়াম, ফসফরাস এবং কার্বোহাইড্রেট কোষ গঠন ও বৃদ্ধিতে সহায়তা করে। তাই নজর রাখুন খাদ্যতালিকায়।

২) কিছু বদঅভ্যাস থেকে দূরে থাকুন

ধূমপান, মদ্যপান এবং ড্রাগস নেয়ার মতো বাজে অভ্যাস দেহের সর্বোচ্চ বৃদ্ধিতে বাঁধা প্রদান করে। বলতে গেলে, দেহের বৃদ্ধি এই বাজে অভ্যাসগুলো একেবারেই বন্ধ করে দেয়। তাই নিজেকে এই বদঅভ্যাস থেকে দূরে রাখুন।

৩) নিয়মিত শারীরিক ব্যায়াম

নিয়মিত শারীরিক ব্যায়ামের অভ্যাস আমাদের দেহের গ্রোথ হরমোন উৎপাদনে সহায়তা করে। হাঙ্গিং, স্ট্রেচিং ধরণের ব্যায়াম দেহের উচ্চতা বৃদ্ধিতে বেশ সহায়ক। এছাড়াও সাতার, আরোবিক্স, টেনিস, ক্রিকেট, ফুটবল, বাস্কেটবলের মতো খেলার মাধ্যমে শারীরিক ব্যায়াম ও পরিশ্রম দুটোই হয় তা দেহের উচ্চতা বৃদ্ধিতে সহায়তা করে।

৪) যোগব্যায়ামে মনোযোগ দিন

মানসিক চাপ দূর করতে যোগব্যায়ামের জুড়ি নেই। আর এই মানসিক চাপ উচ্চতা বৃদ্ধিতে বাঁধা প্রদান করে, তাই নিয়মিত যোগব্যায়াম করার চেষ্টা করুন। এছাড়াও যোগব্যায়াম দেহের বাড়তি মেদ ঝরাতে সহায়ক যা দেহকে বেশ লম্বা দেখাতে সহায়ক।
৫) সোজা হয়ে চলুন

হাঁটাচলা করা এবং বসার সময় সঠিকভাবে ঘাড় ও মেরুদণ্ড সোজা রেখে হাঁটা ও বসা এবং শোয়ার সময় ঘাড় বেশি বাঁকা না করে মেরুদণ্ডের প্রায় সমান্তরালে রাখার মতো অঙ্গবিন্যাসও উচ্চতা বৃদ্ধিতে সহায়তা করে থাকে।

৬) পরিমিত পানি পান করুন

পানি পানের মাধ্যমেই পানিশূন্যতার হাত থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব। এছাড়াও পরিমিত পানি পান করার অভ্যাস দেহে সঠিকভাবে পুষ্টি শোষণ নিশ্চিত করে যা দেহের উচ্চতা বৃদ্ধিতে সহায়ক।

৭) উচ্চতা বাড়াতে ভিটামিন ডি

আমরা সকলেই জানি ভিটামিন ডি হাড়ের জন্য অনেক বেশি কার্যকরী একটি উপাদান। ভিটামিন ডি পরিমিত পেলে হাড়ের বৃদ্ধি সঠিকভাবে ঘটে এবং এতে উচ্চতা আপনাআপনিই বৃদ্ধি পায়। তাই সকালের উষ্ণ কোমল রোদ দেহে পড়তে দিন এবং ভিটামিন ডি সমৃদ্ধ খাবার খান।

৮) পরিমিত ঘুম ও বিশ্রাম

ঘুমের সময় আমাদের দেহ গঠনের টিস্যুগুলো কাজ করে যা আমাদের উচ্চতা ও শারীরিক গঠন বৃদ্ধিতে সহায়ক। হিউম্যান গ্রোথ হরমোন প্রাকৃতিক উপায়ে আমাদের দেহে উৎপন্ন হতে থাকে যখন আমরা পরিমিত পরিমাণে ঘুমাতে পারি এবং বিশ্রাম নিতে পারি। তাই বয়স অনুযায়ী ৮-১১ ঘণ্টা ঘুম ও বিশ্রাম দেয়ার চেষ্টা করুন নিজেকে। প্রাকৃতিক উপায়ে এটিই সবচাইতে ভালো পদ্ধতি উচ্চতা বৃদ্ধি করার।

ছবিটি প্রতীকী, মডেলঃ চিত্রনায়ক আরেফিন শুভ

সূত্রঃ healthdigezt.com



« (পূর্বের সংবাদ)