মেইন ম্যেনু

গুলশান হামলার তদন্ত করছে ভারতীয় নিরাপত্তা সংস্থা?

গুলশানে সন্ত্রাসী হামলার তদন্তে বাংলাদেশের গোয়েন্দা সংস্থাগুলোর সাথে নিবিড়ভাবে কাজ করছে ভারতীয় নিরাপত্তা সংস্থাগুলো। ভারতের একজন উচ্চপদস্থ সরকারী কর্মকর্তার বরাতে এ তথ্য জানিয়েছে টাইমস অব ইন্ডিয়া। শুক্রবারের এ হামলায় অন্তত ২২ জন নিহত হয়েছেন।

টাইমস অব ইন্ডিয়াকে ওই কর্মকর্তা বলেন, ‘ভারতের নিরাপত্তা সংস্থাগুলো এ ঘটনার তদন্তে বাংলাদেশের সাথে নিবিড়ভাবে কাজ করে যাচ্ছে যাতে করে গুলশানের মতো কূটনৈতিক এলাকায় এমন একটি ঘটনার সব তথ্য উন্মোচিত হয়।’

তিনি বলেন, ‘বন্ধুভাবাপন্ন একটি সরকারের এমন পরিস্থিতিতে আমরা সাহায্য করতে প্রতিশ্র“তিবদ্ধ। আমরা সেটিই করছি।’

টাইমস অব ইন্ডিয়া জানাচ্ছে এটা এখনো নিশ্চিত নয় যে ভারতীয় কর্মকর্তারা বাংলাদেশের তদন্তকারীদের সাথে এখনো দেখা করেছেন কী না।

গুলশানের ঘটনার দায় স্বীকার করেছে আইএস। যদিও বাংলাদেশ সরকার বরাবরের মতো এবারও আইএসের জড়িত থাকার খবরকে অস্বীকার করেছে।

কিন্তু ভারতীয় ওই কর্মকর্তা এ ঘটনার পেছনে আইএসের জড়িত থাকার বিষয়ে ইঙ্গিত করেছেন।

গত ১ জুলাইয়ের হামলায় ডিবির সহকারী কমিশনার (এসি) রবিউল ইসলাম এবং বনানী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সালাউদ্দিন নিহত হয়েছেন। আহত হন প্রায় ৩০ জন পুলিশ সদস্য। নিহত দুই পুলিশ কর্মকর্তা হলেন- ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) সহকারী কমিশনার রবিউল ইসলাম ও বনানী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সালাহউদ্দিন। আহতদের মধ্যে ১৯ জন গুলশানের ইউনাইটেড হাসপাতালে ভর্তি আছেন।

জঙ্গি হামলা চালিয়ে দেশি-বিদেশি নাগরিকদের জিম্মি করার ঘটনায় দায় স্বীকার করেছে মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক আন্তর্জাতিক জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেট (আইএস)। এই ধরনের অতর্কিত হামলা চালিয়ে মানুষজনকে জিম্মি করার ঘটনা বাংলাদেশে এটাই প্রথম।

শনিবার ভোরে সেনাবাহিনীর নেতৃত্বে যৌথবাহিনী অভিযান চালায়। চালিয়ে জিম্মি হওয়া ১৩ জনকে জীবিত উদ্ধার করে এবং ২০ জন বিদেশি নাগরিকের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে বলে সংবাদ সম্মেলনে জানান ব্রিগেডিয়ার জেনারেল নাঈম আশফাক। এ ঘটনায় বাংলাদশে দুই দিনের শোক পাল করে বাংলাদেশ।



« (পূর্বের সংবাদ)