মেইন ম্যেনু

অল্প রানে ভারতের গুটিয়ে যাওয়ার পর দারুণ জমেছে লড়াই

বিশাখাপত্তনমে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টে ইংলিশদের বিপক্ষে রানের পাহাড় গড়েছে স্বাগতিক ভারত। ব্যাটিং ব্যর্থতার পরও দ্বিতীয় ইনিংসে ২০৪ রান সংগ্রহ করেছে কোহলি বাহিনী। তবে অল্প রানে ভারতের গুটিয়ে যাওয়ার পরও দারুণ জমেছে লড়াই। ম্যাচটি জয়ের জন্য ইংলিশদের করতে হবে ৪০৫ রান!

প্রথম ইনিংসে ভারতের করা ৪৫৫ রানের জবাবে ২৫৫ রানেই অলআউট হয়ে গিয়েছিল ইংল্যান্ড। খ্যাপাটে ক্রিকেটার বেন স্টোকস (৭০) ছিলেন সর্বোচ্চ স্কোরার। এছাড়া জো রুট ৫৩ এবং বেয়ারস্টো ৫৩ রান করেন। ষষ্ঠ উইকেটে এই দুজনের জুটিতে আসে ১১০ রান। চলতি বছরে ৭ ইনিংসে স্টোকস-বেয়ারস্টো জুটির রান ৭৭২।

বলা যায়, এ দুজনই টানছে ইংলিশ ব্যাটিং লাইনআপ। স্টোকস-বেয়ারস্টোর কল্যাণে ২৫৫ রান অবধি পৌঁছে সফরকারীরা। বল হাতে আবারও ভয়ংকর হয়ে উঠেন রবিচন্দ্রন অশ্বিন। ২৯.৫ ওভার বল করে ৬৭ রানে ৫ উইকেট দখল করেন তিনি। এই নিয়ে ২২ ইনিংসে ৫ উইকেট শিকার করলেন এই মায়াবী ঘাতক।

২০০ রানে এগিয়ে থেকে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে বিপর্যয়ে পড়ে স্বাগতিক ভারত। ১৬ রানে প্রথম উইকেট হারানোর পর ১৫১ রানেই চলে যায় ৭ উইকেট! ইংলিশ বোলার স্টুয়ার্ট ব্রড এবং আদিল রশিদকে কৃতিত্ব দিতেই হবে। দুজনেই সমান ৪টি করে উইকেট নেন।

ভারতের দ্বিতীয় ইনিংসে একটি মাত্র হাফ সেঞ্চুরি। ব্যাটসম্যানদের যাওয়া আসার মিছিলে একপ্রান্ত আগলের রাখা অধিনায়ক বিরাট কোহলির ৮১ রানের ইনিংসটি তিন অংকেও পৌঁছতে পারত। কিন্তু আদিল রশিদের বলে বেন স্টোকসের হাতে করুন পরিণতি হয় ১০৯ বলে ৮ বাউন্ডারিতে গড়া ইনিংসটির।

শেষ পর্যন্ত চতুর্থ দিন লাঞ্চের আগেই ২০৪ রানে অলআউট হয়ে যায় ভারত। তারপরও ইংলিশদের সামনে ৪০৫ রানের পাহাড়। ম্যাচের আরও দেড় দিন বাকী। এত রান চেজ করে জয়ের কোনো প্রশ্নই আসে না। তবে ম্যাচ ড্র করে অ্যালিস্টার কুকের দল হার এড়াতে পারবে কিনা সেটাই এখন বড় প্রশ্ন।ভারতের বিপক্ষে এখন ব্যাট হাতে লড়ছে ইংল্যান্ড।