মেইন ম্যেনু

আইভীর পাশে থাকবো, প্রয়োজনে প্রার্থীও হবো : সেলিম ওসমান

selim

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র পদপ্রার্থী ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভীর পাশে থাকার কথা জানিয়েছেন জাতীয় পার্টি থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্য সেলিম ওসমান। রোববার বিকেলে নারায়ণগঞ্জ কলেজ পরিদর্শনে এসে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘সিটি করপোরেশন নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যাকে মনোনয়ন দিয়েছেন তার প্রতি সম্মান প্রদর্শন করতে হবে। প্রধানমন্ত্রী যেহেতু উপ-নির্বাচনে জাতীয় পার্টিকে আসন ছেড়ে দিয়ে আমাকে সেক্রিফাইস করেছিলেন, সে জন্য আমিও সেক্রিফাইস করব।’

এর পাশাপাশি ‘যদি প্রয়োজন হয়’ তবে নিজেও মেয়র পদে লড়বেন বলে ঘোষণা দিয়েছেন নারায়ণগঞ্জ ৫ আসনের এই সংসদ সদস্য।

সেলিম ওসমান সাংবাদিকদের জানান, যদি নির্বাচনে আইভীর মনোনয়নপত্রে আইনগত কোনো বাধা সৃষ্টি হয়, সেক্ষেত্রে জাতীয় পার্টি বসে থাকবে না, নির্বাচনের জন্য প্রস্তুত থাকবে। নির্বাচন যাতে সুষ্ঠু হয় সেজন্য জাতীয় পার্টি এই নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবে। দলীয় প্রার্থীকেই তিনি সমর্থন দেবেন।

এবারের নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে হবে এমন আশাবাদ ব্যক্ত করে সেলিম ওসমান বলেন, নির্বাচন জনগণের ভোটের মাধ্যমেই হবে। জনগণ যাতে কোনোভাবেই বিভ্রান্ত না হয় এবং শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট দিতে পারে সেজন্য সরকার ব্যবস্থা নেবে।

এদিকে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে রোববার পর্যন্ত মেয়র পদে পাঁচজন, সাধারণ কাউন্সিলর পদে ১৮২ জন এবং সংরক্ষিত নারী আসনে ৩৬ জন প্রার্থী জেলা নির্বাচন কার্যালয় থেকে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন।

সকালে সিটি করপোরেশনের বর্তমান মেয়র ও আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভীর পক্ষে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন তার ব্যক্তিগত সহকারী আবুল হোসেন। পরে দুপুরে বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির অ্যাডভোকেট মাহাবুবুর রহমান ইসমাঈল, এলডিপির হাজি কামাল প্রধান ও স্বতন্ত্র প্রার্থী সুলতান মাহমুদ মেয়র পদে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার মেয়র পদে প্রথম মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেন বাংলাদেশ কল্যাণ পার্টির রাশেদ ফেরদৌস সোহেল।

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন নির্বাচনের রিটার্নিং অফিসার নূরুজ্জামান তালুকদার জানান, গত শুক্র ও শনিবার ছুটির দিন ব্যাংক বন্ধ থাকায় জামানত প্রদান করতে না পারার কারণে জেলা নির্বাচন কার্যালয়ে প্রার্থীর সংখ্যা খুবই কম ছিল। তবে রোববার থেকে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করতে প্রার্থীরা হুমড়ি খেয়ে পড়েছে।