মেইন ম্যেনু

আপনি কি ভুল চাকরি করছেন? লক্ষণগুলো জেনে নিন

093102congested_office_2

একই চাকরি—অন্যরা স্বস্তিতে আছে, কিন্তু আপনি আছেন অস্বস্তিতে। এমনটা হলে বুঝতে হবে, এ কাজ হয়তো আপনার জন্য নয়। আপনি ভুল কাজ বেছে নিয়েছেন। বিশেষজ্ঞরা এমনই কিছু লক্ষণ শনাক্ত করেছেন, যেটা ঘটলে আপনাকে বুঝতে হবে চাকরির সমস্যা নয়, সমস্যা আপনার।

কাজ করতে পেরেশানি লাগে
এখানে কঠোর পরিশ্রমের কথা বলা হচ্ছে না। সাধারণ কাজ হলেও আপনি তা শেষ করতে রীতিমতো অস্থির হয়ে ওঠেন। আসলে নতুন নতুন দক্ষতা অর্জন অতি জরুরি বিষয়। তাই বলে সব কাজই যে খুব কঠিন, এমন নয়। সবাই তার কাজে সময়ের সঙ্গে সহজ হয়ে ওঠেন। কিন্তু যখন আপনি কোনোভাবেই মানিয়ে নিতে পারছেন না, তখন বুঝতে হবে, এ কাজ আপনার জন্য নয়।

সপ্তাহের প্রথম কর্মদিবসেও অনীহা
ছুটির দিন কাটিয়ে পরদিন আবারও অফিসের জন্য প্রস্তুতি নেওয়া নিয়মিত কাজ। সপ্তাহের প্রথম কর্মদিবসে একটু বিরক্ত লাগতেই পারে। কিন্তু এর ভয়ে রীতিমতো জড়োসড়ো হয়ে থাকা স্বাভাবিক নয়। যদি আপনার এমন হয়, তবে বুঝতে হবে অফিসের কাজ আপনার ভালোই লাগে না।

মন খারাপের চাকরি
সপ্তাহের এক বা একাধিক কর্মদিবস খারাপ যেতে পারে। কিন্তু এ চাকরি নিয়ে আপনার মন সব সময় খারাপ থাকা মানে হলো, আপনি সঠিক কর্মক্ষেত্রে নেই।

বস অখুশি
সহকর্মীরা সবাই ঠিক আছেন। কিন্তু বস আপনার কাজ মেনে নিতে পারেন না। তিনি আপনার বিষয়ে একের পর এক নেতিবাচক মন্তব্য করে যান। কাজেই এটা আপনার ভালো লাগার কথা নয়।

অফিস যেন যুদ্ধ
প্রতিটা দিন মনে হয় যুদ্ধক্ষেত্র। অথচ কাজের চাপ ও ব্যস্ততা থাকবেই। কিন্তু এটা আপনার কাছে অসহ্য হয়ে উঠছে দিন দিন। অফিস যে আপনার ভালো লাগে না, এটা তাই প্রমাণ করে।

পেশা ও ব্যক্তিগত জীবন ভারসাম্যহীন
প্রত্যেক কর্মজীবীর গুরুত্বপূর্ণ কাজ হলো অফিস ও ব্যক্তিগত জীবনের মধ্যে ভারসাম্য স্থাপন করা।

–বিজনেস ইনসাইডার অবলম্বনে সাকিব সিকান্দার