মেইন ম্যেনু

আফ্রিদিকে ছাড়াই পিসিবির চুক্তি

photo-1477637970

শহীদ আফ্রিদিকে কি আর কখনো আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে দেখা যাবে? প্রশ্নটা অনেক দিন ধরেই ঘুরপাক খাচ্ছে পাকিস্তানের ক্রিকেটাঙ্গনে। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের পর দল থেকে বাদ পড়া আফ্রিদি নিজে এ ব্যাপারে পরিষ্কার করে কিছু বলেননি। তবে বর্তমানে যা পরিস্থিতি, তাতে তাঁর দলে ফেরার সম্ভাবনা ক্ষীণই বলা যায়। পাকিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের (পিসিবি) কেন্দ্রীয় চুক্তিতে এই অলরাউন্ডারের নাম নেই। বাদ পড়েছেন অফস্পিনার সাঈদ আজমলও।

গত মার্চ-এপ্রিলে অনুষ্ঠিত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে পাকিস্তান ব্যর্থ হওয়ার পর অধিনায়কত্ব ছেড়ে দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছিলেন আফ্রিদি। তবে জাতীয় দলে খেলা চালিয়ে যাওয়ার ইচ্ছার কথাও জানিয়েছিলেন। পাকিস্তান দলে অবশ্য আর জায়গা হয়নি তাঁর। ভবিষ্যতেও হবে কি না তার ওপরে প্রশ্নচিহ্ন ঝুলিয়ে দিয়েছে বৃহস্পতিবার ঘোষিত কেন্দ্রীয় চুক্তি। যদিও গত বছরের চুক্তিতে আফ্রিদি ছিলেন সর্বোচ্চ ‘এ’ ক্যাটাগরিতে।

আফ্রিদির মতো আজমলও বাদ পড়েছেন অনুজ্জ্বল পারফরম্যান্সের কারণে। ২০১৪ সালের জুলাইয়ে অবৈধ বোলিং অ্যাকশনের দায়ে নিষিদ্ধ হয়েছিলেন তিনি। গত বছর অ্যাকশন শুধরে মাঠে ফিরলেও তেমন সাফল্য পাননি। তাই থাকতে পারেননি কেন্দ্রীয় চুক্তিতে।

চারটি ক্যাটাগরিতে ৩০ জন খেলোয়াড়কে রেখে কেন্দ্রীয় চুক্তি ঘোষণা করেছে পিসিবি। ‘এ’ ক্যাটাগরিতে আছেন পাকিস্তানের টেস্ট, ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক মিসবাহ-উল-হক, আজহার আলী ও সরফরাজ আহমেদ। ‘বি’ থেকে ‘এ’ ক্যাটাগরিতে উঠে এসেছেন লেগস্পিনার ইয়াসির শাহ। এ বছর ছয় টেস্টে ৩৬ উইকেট শিকারের পুরস্কার পেয়েছেন তিনি। ‘এ’ ক্যাটাগরির বাকি চারজন হলেন ইউনুস খান, মোহাম্মদ হাফিজ, শোয়েব মালিক ও ওয়াহাব রিয়াজ।