মেইন ম্যেনু

আমেরিকা অচল করে দেওয়া হুমকি বিক্ষোভকারীদের

আগামী বছরের ২০ জানুয়ারি যুক্তরাষ্ট্রের নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প হোয়াইট হাউসের আনুষ্ঠানিক ক্ষমতাগ্রহণ করবেন। ডোনাল্ড ট্রাম্পের এই শপথ গ্রহণের দিন আমেরিকা অচল করে দেওয়া হবে এমন হুমকি দিয়েছেন ট্রাম্পবিরোধী বিক্ষোভকারীরা।

ওইদিন ট্রাম্পের শপথগ্রহণের অনুষ্ঠানকে ঘিরে ওয়াশিংটনের রাস্তায় দশ লাখ নারী বিক্ষোভ করবেন বলে জানিয়েছেন আয়োজকরা।

ট্রাম্পের শপথগ্রহণের সময়ে রাজধানীতে ব্যাপত বিক্ষোভের প্রস্তুতি নিচ্ছে বামপন্থী ও অ্যানার্কিস্ট গ্রুপগুলো। তারা এ নিয়ে অনলাইনে ব্যাপক প্রচারণা চালাচ্ছে বলে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ানের খবরে বলা হয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রে ট্রাম্পবিরোধী বিক্ষোভ ক্রমেই আন্দোলনের রূপ নিচ্ছে। এদিকে শনিবারের বিক্ষোভে ভারি জমায়েতের প্রস্তুতি নিচ্ছেন বিক্ষোভকারীরা। এইদিন আয়োজকেরা দেশজুড়ে বিক্ষোভের প্রস্তুতি নিয়েছেন। নিউ ইয়র্কের ইউনিয়ন স্কয়ারে বিক্ষোভের জন্য ইতোমধ্যে দশ হাজারেরও বেশি মানুষ নিবন্ধন করেছেন।

নিউ ইয়র্কে বিক্ষোভের প্রচারণার আয়োজকরা তাদের ফেসবুক পোস্টে আহ্বান জানিয়েছেন, ‘রাস্তায় আমাদের সঙ্গে যোগ দিন! ট্রাম্প এবং তার গোঁড়ামি অ্যাজেন্ডা রুখে দাঁড়ান।’

বৃহস্পতিবার থেকে শুক্রবার রাত পর্যন্ত ডেনভার, মিনিয়াপোলিস, মিলওয়াউকি, পোর্টল্যান্ড, ওকল্যান্ডসহ বেশ কয়েকটি শহরে বিক্ষোভ হয়েছে। শতাধিক বিক্ষোভকারীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

ঘটেছে অগ্নিসংযোগ ও ভাঙচুরের ঘটনা। কানাডার ভ্যানকুভারেও ব্যাপক বিক্ষোভ হয়েছে। সেখানেও শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানের সময় বিক্ষোভের পরিকল্পনা রয়েছে আয়োজকদের।

এদিকে, বৃহস্পতিবার ট্রাম্প এক টুইট বার্তায় অভিযোগ করেন, এসব বিক্ষোভকে ভাড়াটে বিক্ষোভকারীদের কাজ ও মিডিয়ার সৃষ্টি। ট্রাম্প লিখেছেন, ‘এই বিক্ষোভ অনুচিত এবং বিক্ষোভকারীরা ভাড়াটে।’

টুইট বার্তায় ট্রাম্প আরও লিখেছেন, ‘মাত্র একটি খোলামেলা ও সফল প্রেসিডেন্ট নির্বাচন সম্পন্ন হলো, আর এখন মিডিয়ার উসকানি পাওয়া ভাড়াটে বিক্ষোভকারীরা বিক্ষোভ করছে। খুবই বাজে!’