মেইন ম্যেনু

ইংল্যান্ডকে কঠিন চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিল বাংলাদেশ

bd1477808051

ঢাকা টেস্টে ইংল্যান্ডের সামনে কঠিন চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিল বাংলাদেশ। সিরিজের দ্বিতীয় টেস্ট জিততে চাইলে ইংলিশদের গড়তে হবে রেকর্ড।

তৃতীয় দিনে বাংলাদেশ নিজেদের দ্বিতীয় ইনিংসে অলআউট হয়েছে ২৯৬ রানে। ফলে ইংল্যান্ডের সামনে লক্ষ্য দাঁড়িয়েছে ২৭৩ রান।

এশিয়ায় এত রান তাড়া করে কখনোই জেতেনি ইংল্যান্ড। সর্বোচ্চ ২০৯ রান তাড়া করে জিতেছিল ২০১০ সালে এই মিরপুরে বাংলাদেশের বিপক্ষেই। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২০৮ রান তাড়া করে জিতেছিল ১৯৬১ সালে লাহোরে পাকিস্তানের সঙ্গে।

দুই শর বেশি রান তাড়া করে আর একবারই জিতেছে ইংলিশরা, ১৯৭২ সালে দিল্লিতে ভারতের বিপক্ষে। ইংল্যান্ড তাদের টেস্ট ইতিহাসে সর্বোচ্চ ৩৩২ রান তাড়া করে জিতেছিল ১৯২৮ সালে মেলবোর্নে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে।

মিরপুরে প্রথম ইনিংসে ২৪ রানে পিছিয়ে থাকা বাংলাদেশ শনিবার দ্বিতীয় দিন শেষে দ্বিতীয় ইনিংসে তোলে ৩ উইকেটে ১৫২ রান। প্রথম ইনিংসের ঘাটতি কাটিয়ে তখন বাংলাদেশ এগিয়ে ১২৮ রানে। সেখান থেকে রোববার তৃতীয় দিনের ব্যাটিং শুরু করে স্বাগতিকরা।

আগের দিনের শেষ বলে অযাচিত শট খেলতে গিয়ে উইকেট বিলিয়ে দিয়েছিলেন মাহমুদউল্লাহ। দিন শেষে ৫৯ রানে অপরাজিত থাকা ইমরুল কায়েসের সঙ্গে তৃতীয় দিনে ব্যাটিংয়ে নামেন সাকিব আল হাসান।

ইংলিশ স্পিনার মঈন আলীর করার দিনের চতুর্থ বলেই চার মেরে শুরু করেন ইমরুল। এরপর দুজন মিলে দলকে এগিয়ে নিতে থাকেন। ইনিংসের ৪৫তম ওভারে জাফর আনসারির শেষ বলে সাকিব চার মারলে দলের স্কোর ২০০ স্পর্শ করে। কিন্তু পরের ওভারে মঈনের প্রথম বলেই সুইপ করতে গিয়ে এলবিডব্লিউ হয়ে যান ইমরুল (১২০ বলে ৭৮)। বাংলাদেশের লিড তখন ১৭৬।

ইমরুলের বিদায়ের পর নতুন ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহিমকে সঙ্গে নিয়ে দলকে এগিয়ে নিতে থাকেন সাকিব। ২৩ রানে অবশ্য সাকিব একবার জীবন পান। আনসারির বলে চারের পর ছক্কা হাঁকানোর চেষ্টায় সহজ ক্যাচ দেন ডিপ মিডউইকেটে। তবে বেন ডাকেট বলটি তালুবন্দি করতে পারেননি। এরপর একবার জীবন পান মুশফিকও। জীবন পাওয়া এই দুজনের ব্যাটে দলের লিড ২০০ পেরিয়ে যায়।

খানিক বাদেই অবশ্য ফিরে যান সাকিব। দুই বল আগে চার মেরেছিলেন, আদিল রশিদের পঞ্চম বলে প্লেড অন হয়ে বিদায় নেন সাকিব (৮১ বলে ৪১)। বাংলাদেশের স্কোর তখন ৫ উইকেটে ২৩৮, লিড ২১৪। স্কোরবোর্ডে আর কোনো রান জমা না হতে বিদায় নেন মুশফিকও। বেন স্টোকসের বলে স্লিপে অ্যালিস্টার কুককে ক্যাচ দেন অধিনায়ক (২৯ বলে ৯)।

এর আগে প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশের ২২০ রানের জবাবে ইংল্যান্ড অলআউট হয়েছে ২৪৪ রানে।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

বাংলাদেশ প্রথম ইনিংস : ৬৩.৫ ওভারে ২২০ (তামিম ১০৪, মুমিনুল ৬৬, মাহমুদউল্লাহ ১৩, সাকিব ১০; মঈন ৫/৫৭, ওকস ৩/৩০, স্টোকস ২/১৩ )।

ইংল্যান্ড প্রথম ইনিংস : ৮১.৩ ওভারে ২৪৪ (রুট ৫৬, ওকস ৪৬, রশিদ ৪৪*; মিরাজ ৬/৮২, তাইজুল ৩/৬৫, সাকিব ১/৪১)।



« (পূর্বের সংবাদ)