মেইন ম্যেনু

ইংল্যান্ড-বাংলাদেশ সিরিজে যত রেকর্ড

৩ : কুক-ডাকেটের জুটিতে এশিয়ার মাটিতে চতুর্থ ইনিংসে তৃতীয়বার ওপেনিং জুটিতে শতরান করে ইংল্যান্ড।

৫ : পঞ্চমবার দুই টেস্টে সিরিজের ৮০টি উইকেট পড়েছে। এর আগে সর্বশেষ ২০০৫ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজ-পাকিস্তান সিরিজে এমনটা হয়েছে।

৫ : পঞ্চম কনিষ্ঠ বোলার মেহেদী হাসান মিরাজ, যিনি এক টেস্টে ১০ উইকেটের মাইলফলক ছুঁয়েছেন। তার উপরে রয়েছেন এনামুল হক জুনিয়র, ওয়াসিম আকরাম, শিভারামাকৃষ্ণা এবং ওয়াকার ইউনুস।

৬ : ষষ্ঠ বোলার হিসেবে প্রথম দুই টেস্টে তিনবার ৫ উইকেটের মাইলফলক ছুঁয়েছেন মিরাজ। এর আগে এ কীর্তি গড়েছিলেন নরেন্দ্র হিরওয়ানি, ক্ল্যারি গ্রিমেট, টম রিচার্ডসন, সিডনি বার্নেস ও রডনি হজ।

৮ : টেস্ট ক্রিকেটে বাংলাদেশের অষ্টম জয়। জিম্বাবুয়ে এবং ওয়েস্ট ইন্ডিজের পরে এই প্রথম পূর্ণ শক্তির কোনো দলকে হারালো বাংলাদেশ।

৯ : অভিষেকেই সিরিজ সেরার পুরস্কার পাওয়া নবম ক্রিকেটার মেহেদী হাসান মিরাজ। এর আগে এমন কীর্তি গড়েছেন রোহিত শর্মা, জেমস প্যাটিনসন, ভারনন ফিলান্ডার, রবিচন্দ্রন অশ্বিন, অজন্তা মেন্ডিস, স্টুয়ার্ট ক্লার্ক, জ্যাক রুডলফ ও সৌরভ গাঙ্গুলি।

১০ : কামরুল ইসলাম রাব্বি দশম ব্যাটসম্যান হিসেবে টেস্টে ক্রিকেটে ছক্কা মেরে রানের খাতা খুলেছেন। বাংলাদেশি হিসেবে তিনি চতুর্থ।

১২ : মিরপুর টেস্টে ১২টি শিকার করেছেন মিরাজ, বাংলাদেশের সেরা বোলিং ফিগার (১২/১৫৯)। ২০০৫ সালে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সমান ১২টি উইকেট নিয়েছেন এনামুল হক জুনিয়র (১২/২০০)।

১৯ : দুই ম্যাচের এই সিরিজে মেহেদী হাসান মিরাজের উইকেট সংখ্যা। বাংলাদেশি বোলারদের মধ্যে যা কোনো সিরিজে সর্বোচ্চ। এর আগে ১৮ উইকেট নিয়ে এই রেকর্ডটি ছিলো সাকিব আল হাসান ও এনামুল হক জুনিয়রের।

৩৮ : এই সিরিজে বাংলাদেশি স্পিনারদের নেওয়া উইকেট সংখ্যা। যা কিনা দুই টেস্টে সিরিজে স্পিনারদের নেওয়া সর্বাধিক উইকেট সংখ্যা। এর আগের রেকর্ডটিও ছিল বাংলাদেশের। ২০০৯ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ৩৩টি উইকেট নিয়েছিলেন টাইগার স্পিনাররা।

৪০ : প্রথমবারের মতো বাংলাদেশ দুই টেস্ট সিরিজের দুই ইনিংসের সবকটি উইকেট তুলে নিলো বাংলাদেশ। এটা কোনো সিরিজে বাংলাদেশের সর্বাধিক উইকেট শিকার। এর আগে ২০০৩ সালে পাকিস্তানের বিপক্ষে ৪৩টি উইকেট নিয়েছিল বাংলাদেশ।

৬২ : দুই টেস্ট ম্যাচ সিরিজের স্পিনারদের নেওয়া উইকেট, যা কিনা এখন পর্যন্ত সর্বাধিক। এর আগে ১৯৯৮ সালে ভারত-পাকিস্তান সিরিজে ৫৫টি উইকেট নিয়েছিলেন স্পিনাররা।