মেইন ম্যেনু

ইনিই বিশ্বর সবচেয়ে স্টাইলিশ কৃষক

কৃষকরা ছেড়া গেঞ্জি অথবা খালি গায়ে কৃষিকাজ করবেন এটাই স্বাভাবিক। কিন্তু কোট-টাই পরে, পরিপাটি হয়ে খেতে কাজ করতে শুনেছেন কখনো?

জাপানের ইয়ামাগাতা জেলায় কিয়োটো সাইটো এমন এক কৃষক, যিনি কিনা সব সময় পরিপাটি হয়েই খেতে কাজ করেন। তাই তাকে বিশ্বের সবচেয়ে স্টাইলিশ কৃষক বলা হচ্ছে তাকে। সাধারণত কৃষকদের সম্পর্কে যে তাচ্ছিল্য প্রকাশ করা হয়, সে ধারণা পরিবর্তন করতেই তার এ প্রচেষ্টা। খেতে ট্রাক্টর চালানো, কাদায় পূর্ণ খেতে দাঁড়িয়ে কাজ করা, সব সময়ই তাকে দেখা যায় এমন শার্ট, টাই পরা অভিজাত পোশাকে।

প্রায় ৪০০ বছর ধরে কিয়োটোর পরিবার ও পূর্ব পুরুষেরা কৃষি কাজের সঙ্গে জড়িত। তরুণ বয়সে এই কাজকে বিরক্তিকর ভেবে শহরে চলে গিয়েছিলেন কিয়োটো। কয়েক বছর আগে আবারও নিজ এলাকায় তিনি ফিরে আসেন সংসার গড়তে ও পারিবারিক ব্যবসায় সহায়তা করতে। তবে অবশ্যই তার নিজস্ব স্টাইলে।

স্যুট, টাই পরার আইডিয়াটি একটি কৌতুকের মাধ্যমেই তার মাথায় আসে। একদিন খাওয়ার টেবিলে তার ভাই দুষ্টুমী করে তাকে কোট, টাই পরে কাজ করতে বলায় বিষয়টি সিরিয়াসলি নেন কিয়োটো। তার এই আইডিয়াটিকে জাপানে কৃষিকাজে মানুষের ধারণা পাল্টে দেওয়ার পথ হিসেবে দেখেন তিনি।

কিয়োটার কথা হলো-‘বেশিরভাগ মানুষই মনে করে সব সময় ময়লা পরিবেশে কাজ করেন কৃষকেরা, অর্থ আয় করেন কম। আমি চাই তরুণেরা কৃষি কাজটাকে মজার কাজ হিসেবে দেখুক।’

তার এই চিন্তা ধারা অবশ্য প্রথমে বেশ ধাক্কা খেয়েছিল। স্থানীয়রা বুঝে উঠতে পারছিলেন না বিজনেসম্যান বা অফিস কর্মকর্তার পোশাক পরে ধানখেতে কী করছেন তিনি!

কিয়োটো তার অভিজ্ঞতা জানিয়ে বলেন-‘অন্যরা বুঝতে পারছিলেন না আমি কেন স্যুট পরে খেতে কাজ করছি। একজন তো প্রশ্নই করে বসলেন- ‘তুমি কি আমাদের বোকা বানাচ্ছ?’ এমনকি তার দাদা ও বাবা তার এমন পোশাকে ধান খেতে কাজ করার বিষয়টি সহজে মানতে পারেননি প্রথমে। তবে দিন যত এগুলো, সবাই তার স্যুট টাই পরা পোশাকেই তাকে খেতে মেনে নিলেন। এখন জাপানে আলোচনার বিষয় হয়ে উঠেছেন কিয়োটো।