মেইন ম্যেনু

একটি সমস্যার সমাধান দিলেই আপনার হাতে কড়কড়ে ৫ মিলিয়ন ডলার

দূষণের জেরে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবেশ। কোথাও কালো ধোঁয়ায় ঢেকে গিয়েছে আকাশ, তো কোথাও দূষিত জল-মাটি। বিশ্বজুড়ে গ্লোবাল ওয়ার্মিংয়ের লালবাতি জ্বলছে। আপনি কি কিছু ভেবেছেন এই বিষয়ে? দূষণ রোখার জন্য আপনার মাথায় কোনও নতুন চিন্তা ভাবনা ঘোরাফেরা করছে? তাহলে এটাই সঠিক সময়। আপনার এই ভাবনা যদি অনন্য এবং তা যদি সেরা বলে বিবেচিত হয়, তাহলে আপনি কিন্তু পেয়ে যেতে পারেন ৫ মিলিয়ন ডলার। ভারতীয় মুদ্রায় যার পরিমাণ প্রায় ৩৪ কোটি ৩৪ লাখ।

সম্প্রতি এক সুইডেনের পরিবেশপ্রেমিক লাজলো জমব্যাটফ্যালভি এই কথা ঘোষণা করেছেন। ১৯৫৬ সালে শরণার্থী হয়ে হাঙ্গেরি থেকে সুইডেনে চলে আসেন লাজলো। পরে স্টক মার্কেটে প্রচুর টাকা উপার্জন করেন তিনি। বরাবরই পরিবেশপ্রেমিক ছিলেন লাজলো। তিনি সম্প্রতি জানিয়েছেন, ‘পরিবেশ দূষণ প্রতিনিয়ত মানুষকে মৃত্যুর মুখে ঠেলে দিচ্ছে। এই মুহূর্তে পরিবেশকে রক্ষা করা আমাদের সকলের কাছেই একটি বড় চ্যালেঞ্জ।’

২০১২ সালে ‘গ্লোবাল চ্যালেঞ্জেস ফাউন্ডেশন’-এর প্রতিষ্ঠা করেন লাজলো। এই সংস্থার পক্ষ থেকে সম্প্রতি তিনি জানান, ‘আগামী দিনের সম্পদকে ব্যবহার করেই বর্তমান পরিস্থিতির সমাধান করতে হবে। যদি কোনও ব্যক্তি কোনও নতুন ভাবনা দিতে পারেন, যার বাস্তবায়নে এই পরিস্থিতির মোকাবিলা করা যাবে, তবে তাঁকে এই সংস্থার তরফ থেকে পুরস্কার হিসেবে ৫ মিলিয়ন ডলার দেওয়া হবে।’ লাজলোর এই উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছে রাষ্ট্রসংঘও।

২০১৭-এর মে পর্যন্ত চলবে প্রস্তাবনা জমা দেওয়ার প্রক্রিয়া। সেরা প্রস্তাবনা যাঁর, তাঁর নাম প্রকাশ করা হবে আগামী বছরের নভেম্বর মাসে।