মেইন ম্যেনু

একসঙ্গে দুই বোনের আত্মহত্যা

dead

একই সঙ্গে দুই বোন গলায় ওড়নার ফাঁসে আত্মঘাতী হয়েছে সোদপুরে। মৃতাদের নাম সুমিতা (‌১৪)‌ ও সীমা (‌১৭)‌। সুমিতা অষ্টম শ্রেণী ও সীমা একাদশ শ্রেণীর ছাত্রী। দু’‌জনেই স্থানীয় তেঘরিয়া শশীভূষণ হাই স্কুলের ছাত্রী। কালীপুজোর আগের দিন রাতের এই মর্মান্তিক ঘটনায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে সোদপুর মুড়াগাদা এলাকায়।

পুলিসের প্রাথমিক তদন্তে অনুমান, মানসিক অবসাদের কারণে ওরা আত্মঘাতী হয়েছে।

তবে ঠিক কী কারণে একসঙ্গে দুই বোন আত্মহত্যার পথ বেছে নিল তা এখনও পরিষ্কার নয়। পুলিস সূত্রে জানা গেছে, তাদের বাবা সুভাষ দত্ত বেসরকারি বাসচালক। বাবার সঙ্গে মিল না হওয়ায় তাদের মা শেফালি দত্ত দাদু দিলীপ দত্তের কাছে চলে আসেন তাদের নিয়ে।

সেখানেই তারা বড় হতে থাকে। মা খড়দা এলাকায় একটি প্রিন্টিং কারখানায় কাজ করেন। শুক্রবার তারা যথারীতি দাদুকে স্নান করিয়ে দেয়। মায়ের জন্য খাবার তৈরি করে দেয়। মা কাজে বেরিয়ে যান। রাত ৮টা নাগাদ দুই বোনের সাড়াশব্দ না পেয়ে প্রতিবেশীরা ছুটে আসেন। দেখেন ঘরের দরজা ভেতর থেকে বন্ধ। দুই বোন ওড়নার ফাঁসে ঝুলছে।

তাঁরাই পুলিশে খবর দেন। পুলিস এসে ওদের মৃতদেহ উদ্ধার করে। আত্মহত্যার কারণ জানতে পুলিস জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেছে। দু’‌জনের এক সঙ্গে আত্মহতার পেছনে কারও প্ররোচনা আছে কিনা তা খতিয়ে দেখছে পুলিস।‌-আজকাল