মেইন ম্যেনু

একেই বলে অন্ধ-প্রেম! তাড়া করে ধোনিকে ধরে ফেললেন এই তরুণী, পরে একি হলো…

28

মহেন্দ্র সিংহ ধোনির কতই না ফ্যান বিশ্বজুড়ে! মাহি যেখানে সেখানেই ভক্তের দল। রাঁচিতে অনুষ্ঠিত ভারত ও নিউজিল্যান্ড ম্যাচের আগে ধোনি কিউয়ি ক্রিকেটারদের অবাক করে দিয়েছিলেন তাঁর বিখ্যাত হামার গাড়ি চালিয়ে। রাঁচির বিমানবন্দর থেকে গাড়ি চালিয়ে টিম হোটেলে পৌঁছে ছিলেন মাহি।

রাজপথে ধোনির গাড়ি চালানোর দৃশ্য দেখে হতবাক হয়ে যান কিউয়ি ক্রিকেটাররা। সেই ছবি প্রকাশিত হয় সংবাদমাধ্যমেও। কিন্তু সেদিন অন্য একটা ঘটনা ঘটেছিল, যা কারোর চোখেই পড়েনি। পরে তা জানাজানি হয়। রাঁচি বিমানবন্দরে যখন ধোনি হামার গাড়িতে উঠছেন ঠিক সেই সময়ে রাঁচির উওমেন্স কলেজের কয়েকজন ছাত্রী তাঁকে দেখে ফেলেন। সেই মহিলা ছাত্রীদের মধ্যে একজন ছিলেন খুবই ডাকাবুকো। তাঁর নাম আরাধ্যা। তিনি ধোনিকে দেখামাত্রই ধাওয়া করেন। ছোট্ট একটা স্কুটি চেপে ধোনির পিছু নেন সেই মেয়েটি। ধোনি তখনও কিচ্ছুটি বুঝতে পারেননি। তাঁর হামারের পিছনে পিছনে স্কুটি নিয়ে ছোটেন আরাধ্যা। এয়ারপোর্ট টার্মিনালের কাছে ধোনি যখন নিজের গাড়ি থেকে নামছেন, ঠিক সেই সময়ে আরাধ্যা ধোনির নাম ধরে চিৎকার শুরু করে দেন।

সেই চিৎকার শুনে প্রথমটায় থতমত খেয়ে যান ধোনি। ঘুরে দেখেন একটি মেয়ে তাঁর নাম ধরে ডাকছেন। নিরাপত্তারক্ষীরা সেই মেয়েটিকে আটকে রেখেছে। কিছুতেই ধোনির কাছে যেতে দেওয়া হবে না তাঁকে।

মেয়েটিও ধোনির কাছে যাওয়ার জন্য উদগ্রীব, ব্যাকুল। ছটফট করছেন আরাধ্যা। ধোনি সেই দৃশ্য দেখামাত্রই নিরাপত্তারক্ষীদের বলেন, ‘ওকে আসতে দিন।’ নিরাপত্তারক্ষীরাও ছেড়ে দেন আরাধ্যাকে। পছন্দের ক্রিকেটারকে সামনে থেকে দেখে খুব খুশি উওমেন্স কলেজের ছাত্রীটি। ধোনির সঙ্গে সেলফিও তোলেন তিনি। প্রিয় ক্রিকেটারকে সামনে থেকে দেখার পরে আরাধ্যার উপলব্ধি কী? তিনি জানিয়েছেন, ‘ধোনি একদমই মাটির মানুষ।’

বহুদিন আগের ঘটনা। স্থান কলকাতা। ইডেন গার্ডেন্স থেকে অনুশীলন সেরে টিম বাসে উঠছে ভারতীয় দল। এমন সময়ে শিউলি নামের একটি মেয়ে নিরাপত্তার বেষ্টনী অতিক্রম করে ধোনির বুকের উপরে ঝাঁপিয়ে পড়েন। মাহিকে চুমু খাওয়ার চেষ্টাও করেন। কোনওক্রমে পুলিশ এসে শিউলিকে সরিয়ে নিয়ে যায়। সেই শিউলি এখন কোথায়? কেউ জানেন না। রাঁচিতে ধোনির কাছে এলেন অন্য এক ‘শিউলি’। ধোনি তাঁর পছন্দের খেলোয়াড়। ধোনি প্রেমে অন্ধ আরাধ্যা। নাহলে কেউ স্কুটি নিয়ে ধাওয়া করে কাউকে!

যদিও রাঁচিতে অনুষ্ঠিত ওয়ানডে ম্যাচে ভারত বিধ্বস্ত হয়েছিল নিউজিল্যান্ডের কাছে। বিশাখাপত্তনমে ভারত সিরিজ জিতে নেয়। রাঁচিতে ব্যাট হাতে নামার সময়ে ধোনির জন্য সবাই হাততালি দিতে শুরু করে দিয়েছিলেন। ধোনি ফিরে যেতেই গ্যালারি প্রায় ফাঁকা হয়ে গিয়েছিল। আর হবেই বা না কেন! ঘরের ছেলে খেলতে নামছেন বলে কথা। বিমানবন্দর থেকেই শুরু হয়েছিল ধোনি-প্রেম। আরাধ্যাই সুরটা ধরে দিয়েছিলেন। গোটা রাঁচি আরাধ্যার মতোই ধোনি প্রেম দেখায় ম্যাচের দিন।