মেইন ম্যেনু

এখনও পরিচয় মেলেনি ভারতীয় সীমান্তে উদ্ধার মৃতদেহের

a3901d8a4263d1d81fe5bbf6c1f91e87-5812dca679444

ভারতের পেট্রাপোল বন্দরের সীমানা প্রাচীরের নিচে উদ্ধার মৃতদেহটি নিয়ে গেছে ভারতীয় পুলিশ। তবে এখন পর্যন্ত মৃতদেহটির পরিচয় জানা যায়নি। বিজিবির ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ বিষয়টি নিয়ে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফের সঙ্গে আলাপ করলে বুধবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে ভারতীয় পুলিশ অজ্ঞাত ব্যক্তির মৃতদেহটি নিয়ে যায়।

বিএসএফের একটি সূত্র জানায়, ময়নাতদন্তের জন্য মৃতদেহটি ২৪ পরগনা জেলার বনগাঁর একটি হাসপাতালে নিয়ে গেছে পুলিশ। মৃত ব্যক্তি ভারতীয় নাকি বাংলাদেশি তা জানা যায়নি। তবে তিনি একজন মুসলিম বলে জানিয়েছে বিএসএফ।

উল্লেখ্য, বুধবার বিকালে বাংলাদেশি কৃষকরা মাঠে ঘাস কাটতে গেলে ভারতের পেট্রাপোলের ‘সু-সংহত টার্মিনালের’ পাশে মৃতদেহটি দেখতে পায়। এ সময় তার গায়ের শার্টটি টার্মিনালের সীমানা প্রাচীরের কাঁটাতারের বেড়ায় ঝুলতে দেখা যায়। বিজিবি ও পুলিশকে খবর দেওয়া হলেও মৃতদেহটি ভারত সীমানায় থাকায় বেনাপোল পোর্ট থানা পুলিশ তা উদ্ধার করেনি।

বেনাপোল চেকপোস্ট বিজিবি ক্যাম্পের নায়েব সুবেদার নজরুল ইসলাম জানান, বিএসএফকে জানানো হলে বুধবার রাতে ভারতীয় পুলিশ এসে সেখান থেকে মৃতদেহটি নিয়ে যায়। এখনও মৃতদেহটির পরিচয় পাওয়া যায়নি। তবে তিনি একজন মুসলিম এটা নিশ্চিত করেছে বিএসএফ।

স্থানীয়দের ধারণা, উদ্ধার হওয়া মৃতদেহটি ভারতীয় নাগরিকের। তিনি অবৈধভাবে ভারত থেকে বাংলাদেশে প্রবেশের সময় বিএসএফের হাতে আটক হতে পারেন। বিএসএফ সদস্যরা তাকে নির্যাতনের পর হত্যা করে মৃতদেহটি কাঁটাতারের উপর দিয়ে বাংলাদেশের দিকে ফেলে দেওয়ার চেষ্টা করে। কিন্তু মৃতদেহটি ভারত সীমানার মধ্যেই পড়ে যায়। এ সময় তার শরীরে থাকা শার্টটি কাঁটাতারের সঙ্গে ঝুলে থাকে।