মেইন ম্যেনু

এতদিন নিজের ছেলেমেয়ে সম্পর্কে টুঁ শব্দ করেননি সানিয়া, কিন্তু এবার মুখ খুললেন

তাঁর খেলা নিয়ে বিতর্ক, কোর্টে পার্টনার চয়ন করা নিয়েও রয়েছে বিতর্ক। আবার পছন্দের পাত্র শোয়েব মালিককে বিয়ে করেও জন্ম দিয়েছেন বিতর্কের।

পাক-ক্রিকেটার শোয়েব মালিককে বিয়ে করাটা অনেকেই মেনে নিতে পারেননি। সেই সানিয়া মির্জা নিজের বিয়ে প্রসঙ্গে বলছেন, ‘আমি ভারতীয় হিসেবে গর্বিত। আমার স্বামী শোয়েব মালিক পাকিস্তানি হিসেবে গর্বিত। আমাদের বিয়েটা সফল।’ সানিয়া ও শোয়েব চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী দুই দেশের মানুষ। ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে খেলার মাঠে রয়েছে প্রবল রেষারেষি। আবার রাজনৈতিক দিক থেকেও দুই দেশের মধ্যে রয়েছে প্রবল বৈরিতা। সেই রকম দু’টি দেশের মানুষ হয়েও সানিয়া ও শোয়েবের বৈবাহিক জীবন কিন্তু বেশ সুখের। দুই দেশের অশান্ত রাজনৈতিক পরিস্থিতির প্রভাব কিন্তু পড়েনি তাঁদের ব্যক্তিগত জীবনে। বর্তমানে ভারত ও পাকিস্তানের সম্পর্ক খারাপ। এই রকম এক পরিস্থিতিতে শান্তির বার্তা দিচ্ছেন ভারতের টেনিস রানি।

এ তো গেল সানিয়ার এক রূপ। ভবিষ্যতের কথা কি কিছু চিন্তাভাবনা করেছেন সানিয়া? নিজের সন্তানকে কীভাবে বড় করতে চান তিনি? সেই ব্যাপারে কি কিছু ভাবনাচিন্তা করেছেন সানিয়া? সানিয়া টেনিসজগতের। শোয়েব ক্রিকেটের। দু’ জনেই নামী ক্রীড়াব্যক্তিত্ব। সানিয়া কি চান তাঁর সন্তানও বড় হয়ে তাঁদের মতোই খেলোয়াড় হোক?

হায়দরাবাদি টেনিস কন্যা এই ব্যাপারে কিন্তু সতর্ক। বড় হয়ে তাঁদের সন্তান খেলোয়াড় হোক, এটা একদমই চান না সানিয়া। তার বদলে পারফর্মিং আর্টিস্ট বা শিক্ষক বা চিকিৎসক হিসেবে সন্তানকে গড়ে তোলাই লক্ষ্য সানিয়ার। একটি টক শো-য় সেই কথা জানিয়েছেন তিনি। সানিয়া বলছেন, ‘সন্তানকে খেলোয়াড় বানানোর কোনও ইচ্ছেই আমার নেই। ব্যক্তিগতভাবে আমি চাই, আমার সন্তান পারফর্মিং আর্টিস্ট বা চিকিৎসক বা শিক্ষক হোক।’ তাই বলে ছেলেমেয়ের উপরে নিজের ইচ্ছা চাপিয়ে দেওয়ার পক্ষপাতী নন সানিয়া।