মেইন ম্যেনু

‘এবার নির্বাচনে জয়ী হতে জনগণের কাছে যেতে হবে’

এবার (তৃতীয় দফা) নির্বাচনে জয়ী হওয়ার জন্য আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের জনগণের কাছে যাওয়ার নির্দেশনা দিয়েছেন দলীয় সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

রোববার সকালে আওয়ামী লীগের ২০তম জাতীয় সম্মেলনের দ্বিতীয় অধিবেশনে তিনি এই নির্দেশনা দেন। এই অধিবেশনে সভাপতিত্ব করছেন শেখ হাসিনা।

সকাল ৯টা ৪০ মিনিটে ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে দ্বিতীয় দিনের কাউন্সিল অধিবেশন শুরু হয়। ছয় হাজার ৫৭০ কাউন্সিলর এই কাউন্সিলের মাধ‌্যমে আগামী তিন বছরের জন‌্য দলের নতুন নেতৃত্ব ঠিক করবেন।

আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা অধিবেশনের শুরুতেই ২০১৯ সালের পরবর্তী নির্বাচনের জন‌্য দলকে প্রস্তুত করার ওপর গুরুত্ব আরোপ করেন।

তিনি বলেন, ‘সামনে নির্বাচন। জনগণের কাছে যেতে হবে। তৃতীয় দফা নির্বাচনে জয়লাভ করতে হলে জনগণের দোরগোড়ায় যেতে হবে। উন্নয়নের কথা বলতে হবে।’

নির্বাচনে জনগণের সমর্থন পেতে গত সাত বছরে আওয়ামী লীগের নেতৃত্বে বাংলাদেশে উন্নয়নের চিত্র মানুষের কাছে তুলে ধরার ওপর জোর দেন তিনি।

শেখ হাসিনা বলেন, ‘ব্যাপক প্রচার করতে হবে। জনগণকে বোঝাতে হবে, আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকলে জনগণের আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন হবে।’ এক্ষেত্রে আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের মধ‌্যে ‘সততা’দেখতে চান বলে উল্লেখ করেন তিনি।

বিএনপির কর্মকাণ্ডের বিষয়ে সতর্ক করে আওয়ামী লীগ সভাপতি বলেন, ‘যারা মানি লন্ডারিং করে, পুড়িয়ে মানুষ মারে, যুদ্ধাপরাধীদের মদদ দেয়, তারা যেন ক্ষমতায় আসতে না পারে।’

এ সময় শেখ হাসিনা তার বক্তব্যে নিজের বয়স সত্তর বছরের বিষয়টি তুলে ধরে সভাপতির পদ থেকে সরে দাঁড়ানোর আগ্রহ প্রকাশ করেন।

কিন্তু কাউন্সিলররা চান না যে প্রধানমন্ত্রী সরে দাঁড়ান। তারা মনে করেন এ পদের জন্য প্রধানমন্ত্রীই যোগ্য। তাই প্রধানমন্ত্রীর সরে দাঁড়ানোর আগ্রহ প্রকাশের সঙ্গে সঙ্গে কাউন্সিলরা ‘না’ ‘না’ বলে আওয়াজ তোলেন।