মেইন ম্যেনু

‘এমন নির্বাচন কমিশনা প্রয়োজন, যার ওপর সাধারণ মানুষের আস্থা থাকবে’

21-4

বাংলাদেশে শক্তিশালী ও সক্ষম নির্বাচন কমিশনের প্রয়োজন বলে মন্তব্য করেছেন সফররত ইউরোপীয় পার্লামেন্টের বাণিজ্য দলের প্রধান বারন্ড লাঙ্গা। তিনি বলেন, এমন নির্বাচন কমিশনা প্রয়োজন, যার ওপর সাধারণ মানুষের আস্থা থাকবে।’ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় গুলশানস্থ ইউরোপীয় ইউনিয়নের দূতাবাসে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

ইউরোপীয় পার্লামেন্টের বাণিজ্য দলের প্রধান বলেন, ‘বাংলাদেশের রাজনৈতিক অবস্থা স্থিতিশীল। সামনে সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। আমরা মনে করি, নির্বাচন কমিশন সুষ্ঠ গণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে গঠিত হওয়া উচিত। আমরা বিভিন্ন জায়গা থেকে আশ্বস্ত হয়েছি, নির্বাচন কমিশন সুষ্ঠুভাবে গঠন করা হবে।’

বারন্ড লাঙ্গা বলেন, ‘আমরা মনে করি, নিরাপত্তা ও সুষ্ঠু মত প্রকাশের স্বাধীনতার মধ্যে একটি ভারসাম্য থাকা উচিত। নিরাপত্তার নামে মত প্রকাশের স্বাধীনতা খর্ব করা উচিত নয়।

প্রতিনিধিদলের সদস্য জিন ল্যামবারট বলেন, ‘এবারের সফরের মূল ফোকাস ছিল বাণিজ্য। বেশিরভাগ সময়ে এটি নিয়ে আলোচনা হয়েছে। অল্প সময় রাজনীতৈক বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে।’ তিনি বলেন, ‘অবশ্যই আমরা একটি শক্তিশালী ও সক্ষম নির্বাচন কমিশনের প্রয়োজনের বিষয় আলোচনা করেছি। এ নির্বাচন কমিশনের ওপর মানুষের আস্থা থাকতে হবে ।’

জিন ল্যামবারট বলেন ‘নির্বাচন কমিশনের কাজ হচ্ছে নির্বাচনের নিরপেক্ষতা বজায় রাখা।’ তিনি বলেন, ‘বিভিন্ন জায়গা থেকে এ বিষয়ে আমাদের বলা হয়েছে, আমরা একমত যে সামনের নির্বাচন অংশগ্রহণমূলক হওয়া উচিত। এটি নির্ভর করবে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলেন নির্বাচনি প্রচারণায় অংশ নেওয়ার সক্ষমতার ওপর।’

বারন্ড লাঙ্গার নেতৃত্বে সাত সদস্যের ইউরোপীয় পার্লামেন্টের প্রতিনিধি দলের সদস্যরা পাঁচ দিনের সফরে ১৪ নভেম্বর ঢাকা আসেন।