মেইন ম্যেনু

ওজন কমানোর নাটকীয় উপায়

main-lobke20161116173502

সুন্দর ও স্বাভাবিক জীবন-যাপন করতে চায় সবাই। কিন্তু স্থূলতার কারণে অনেকেই স্বাভাবিক জীবন-যাপন করতে পারেন না। ছোটখাটো কাজ করতে গিয়েও হাঁপিয়ে ওঠেন। কিন্তু একটু সচেতন হলেই শরীরের স্থূলতাকে বিদায় করতে পারেন আপনিও।

এই যেমন, ব্রিটেনের লবকি মিউলিমিস্টারের কথাই ধরুন। সুখী সমৃদ্ধ পরিবারে দুশ্চিন্তার কোনো বালাই নেই। সব সময় ডুবে থাকতেন সুস্বাদু সব খাবারের মাঝে। ২০১৫ সালের জানুয়ারিতে লবকির ওজন ছিল ২৩৩ পাউন্ড (১০৫ কেজির একটু বেশি)। সকালে ঘুম থেকে উঠে মাখনের সঙ্গে তিন-চারটি টোস্ট খেতেন। এরপর দুপুরে ভারি খাবার খাওয়ার পরও মগ্ন থাকতেন চিপস, স্যান্ডউইচ, পিৎজায়। এক কথায় খাবার সামনে থাকলে নিজেকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারতেন না তিনি।

ফল হিসেবে স্থূলতা আরো বাড়তে থাকে। শরীরে দেখা দেয় বিভিন্ন ধরনের রোগ। পরে সিদ্ধান্ত নেন যে কোনো উপায়ে হোক স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে হবে। প্রতিদিন দুপুরের খাবারের আগে বিরতিতে হাঁটতে বের হোন তিনি। প্রথমদিন ৮ হাজার বার পা ফেলতে সক্ষম হোন। এটি বাড়ানোর চেষ্টা করতে থাকেন তিনি। শেষ পর্যন্ত সফলও হন; প্রতিদিন দুপুরের খাবারের আগে ১৫ হাজার বার পা ফেলেন তিনি।

পরে জিমে গিয়েও নানা কসরত করেন। বর্তমানে তার শরীরের ওজন ১০৫ কেজি থেকে কমে হয়েছে ৭৪ কেজি।
লবকি মিউলিমিস্টারের শরীরের নাটকীয় এই পরিবর্তন সম্ভব হয়েছে তার চেষ্টায়।