মেইন ম্যেনু

কবি নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়ে ‘সুপার মুন’ বরণে পারফরম্যান্স আর্ট

মোঃ ওয়াহিদুল ইসলাম: “বিপন্ন মানবতার জয় হোক প্রতিষ্ঠিত হোক সকল মানবের অধিকার” স্লোগান কে সামনে রেখে গতরাতের প্রকৃতির অপরূপ সৌন্দর্য সুপার মুন কে নিবিড় সান্নিধ্যে বরণ করার নিমিত্তে মিলিত হয়েছিলো জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের নাট্যকলা ও পরিবেশনা বিদ্যা বিভাগের শিক্ষার্থীরা। এই উপলক্ষে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে আয়োজন করা হয়েছিল পারফরমেন্স আর্টের।

মুলত খোলা আকাশের নিচে গৃহহীন সাঁওতাল পরিবারের সাথে নিজেদের উপলব্ধির জায়গাকে একত্রিত করতেই এই প্রয়াস। প্রকৃতির এই সুখকর অনুভূতি বিপন্ন সম্প্রদায়ের মাঝে যেমন কোন তাৎপর্য বহন করে না পরিবর্তিত বাস্তবতায়, তেমনি একজন শিল্পকলার সহযাত্রী হিসেবেও তাদের সংবেদনশীল মনকে নাড়া দিয়েছে। তারই পরিক্রমায় মানুষের প্রতি মানবিক সহমর্মিতা প্রকাশের জোৎস্নাস্নাত এই রাতে শিক্ষক, ছাত্র-ছাত্রীদের সম্মিলিত অভিপ্রায়ে এই পরিবেশনা।

এই পারফরমেন্স আর্টে বিপন্ন সাঁওতাল আদিবাসীসহ বিভিন্ন আদিবাসী জনসমাজের নৃত্য সংগীত বাদ্য ও গার্হস্থ্য জীবনকে তুলে ধরা হয়েছিল। সেই সাথে কলাপাতার মাঝে তরল খিচুড়ি পরিবেশনের মাধ্যমে তারা একাত্ব হয়েছিল আত্মার মেলবন্ধনে। প্রকৃতির এই অপূর্ব মহিমা যেখানে ম্লাণ হয়ে যাচ্ছে সেখানে নাগরিক সংবেদনার প্রতিবাদী ভাষা এই পারফরমেন্স আর্ট।

প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর উপর ক্ষমতাশীল মানুষের আগ্রাসন শিল্পের দায়বদ্ধতাকে উস্কে দিয়েছে। বিপন্ন জীবনের গ্লানি ও হতাশা ব্যঞ্জক অভিব্যক্তিকে শৈল্পিক আত্মিকরণের মাধ্যমে তুলে ধরতে সুপ্রসন্ন চাঁদের সঙ্গে হিমেল কুয়াশার চাঁদরে মোড়ানো খোলা মাঠে তাদের ছিল সহ অবস্থান।

তাদের এই শৈল্পিক বিপ্লবের সাথে স্বতঃস্ফূর্তভাবে অংশ নিতে সমবেত হয়েছিল বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থী কর্মকর্তা ও কর্মচারীগণ ।