মেইন ম্যেনু

কমিশন গঠন করে সুষ্ঠু নির্বাচনের দাবি জানালেন রিজভী

rijv

নিরপেক্ষ সার্চ কমিটির মাধ্যমে গ্রহণযোগ্য নির্বাচন কমিশন গঠন করে সুষ্ঠু জাতীয় নির্বাচন দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব এড. রুহুল কবির রিজভী আহমেদ।

রাজধানীর নয়াপল্টনে মঙ্গলবার সকালে দলটির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ আহ্বান জানান।

রুহুল কবির রিজভী বলেন, ‘আওয়ামী লীগের নতুন কমিটির কাছে দেশবাসী প্রত্যাশা করে এই কমিটি দেশের হারানো গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার করবে এবং দেশের সংকট নিরসনে কাজ করবে। সেই সঙ্গে আমরাও নতুন কমিটির কাছে প্রত্যাশা করি তারা অবিলম্বে নির্বাচন কমিশন পুনর্গঠনের লক্ষে নিরপেক্ষ সার্চ কমিটি গঠন করে নিরপেক্ষ এবং সুষ্ঠু জাতীয় নির্বাচন দেওয়ার ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।’

তিনি আরো বলেন, ‘বর্তমান গণতন্ত্রহীন দেশে সমাধিস্থ গণতন্ত্র ফিরিয়ে এনে বাক স্বাধীনতা ও মানুষের মৌলিক অধিকার নিশ্চিত করা, মানুষের ভোটাধিকার ফিরিয়ে দেওয়া এবং জানমালের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে বর্তমান আওয়ামী লীগের নবনির্বাচিত কমিটি যথাযথভাবে কাজ করবেন বলে দেশবাসী প্রতাশা করে।’

আওয়ামী লীগের কাউন্সিল সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘কাউন্সিলে অন্যান্য রাজনৈতিক দলের অধিকাংশই অংশগ্রহণ করে নাই। এর মাধ্যমের বোঝা যায় আওয়ামী লীগের একনায়কতান্ত্রিক শাসন ব্যবস্থাকে জায়েজ করতে কেউ আগ্রহী নয়।’

‘আওয়ামী লীগ সভানেত্রী তাদের কাউন্সিলে বলেছেন যে করেই হোক আওয়ামী লীগকে আবারো রাষ্ট্র ক্ষমতায় বসাতে হবে’— কাউন্সিলে দেওয়া প্রধানমন্ত্রীর এই বক্তব্যর সমালোচনা করে তিনি বলেন, ‘‘এ ধরনের বক্তব্যে এটাই প্রমাণিত হয় যে তারা আগামী নির্বাচন নিজেদের অধীনে করে জনগণের মতামত অগ্রাহ্য করে তারা জবরদখলকারী ভূমিকা পালন করবে। রক্তঝরা নির্বাচন করে ক্ষমতায় থাকাটাকেই তাদের কাউন্সিলের মূল প্রতিপাদ্য বলে মনে হয়েছে। আগামী নির্বাচনের পরিণতিটা যে কী ভয়াবহ রুপ নেবে ‘যে করেই হোক’ এই বক্তব্যটি সেটিরই ইঙ্গিত।’’

সম্মেলনে বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব মোয়াজ্জেম হোসেন আলালকে মঙ্গলবার সকালে ছেলের চিকিৎসার জন্য থাইল্যান্ডে যেতে না দেওয়ার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান তিনি।

এ সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘তার পাসপোর্টের মেয়াদ ছিল, হয়রানি না করতে আদালতের নির্দেশনাও ছিল। কিন্তু তাকে অন্যায়ভাবে থাইল্যান্ডে যেতে দেওয়া হয়নি।’

সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন, বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, কেন্দ্রীয় নেতা আব্দুস সালাম পিন্টু, মুনির হোসেন, দেশ বাঁচাও মানুষ বাঁচাও আন্দোলনের আহ্বায়ক আবু নাসের মুহাম্মদ রহমাতুল্লাহ প্রমুখ।