মেইন ম্যেনু

কর্তৃপক্ষের আদেশ অমান্য করে মদনে সরকারি পুকুর ভরাট

মদন (নেত্রকোনা) : নেত্রকোনার মদন উপজেলার দক্ষিন হাসনপুর মৌজার ১৭৯ দাগের প্রায় বিশ কাটা সরকারি পুকুর কর্তৃপক্ষের আদেশ অমান্য করে এলাকার কথিপয় ব্যক্তি নদীর খননের ড্রেজারের বালি দিয়ে পকুরটি ভরাট করে ফেলেছে ।

জানা যায়, উক্ত পুকুর ভরাটের প্রাক্কালে তিন বছরের জন্য ৮৭ হাজার টাকায় ইজারা নেওয়া এনামুল হায়দার ভূমি কর্মকর্তার বরাবর অভিযোগ দায়ের করেন। এ সময় বিভিন্ন জাতীয় দৈনিক ও আঞ্চলিক সংবাদপত্রে এতদ সংক্লান্ত সংবাদ ফলোআপ করে ছাপা হয়। কিন্তু কর্তৃপক্ষ এর উপর নজর না দেওয়ায় এলাকাবাসী সহজেই পুকুরটি ভরাট করতে পেরেছেন।

এ ব্যাপারে ফতেপুর ইউপি চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম চৌধুরী জানান, এলাকার স্বার্থে অংশিক ভরাটে প্রশাসনের অনুমতি থাকলেও এলাকাবাসী পুুকুরটির সিংহভাগই ভরাট করে ফেলেছে। এতে সরকার রাজস্ব হাড়ালেও এলাকাবাসী জানমালের নিরাপত্তা পেয়েছে।

হাসনপুর তহশিলের ইউনিয়ন ভুমি সহকারী কর্মকর্তা ফজলু মিয়া আকন্দ জানান, প্রশাসনের অনুমতি ছাড়াই এলাকার কতিপয়লোক পুকুরটি ভরাট করে ফেলেছে। বুধবার উপজেলা প্রশাসন ভরাট করে ফেলা সরকারী পুকুরটি পরিদর্শন করেছেন।

সার্ভেয়ার মোঃ নছির হোসেনকে মোবাইল ফোনে বারবার যোগাযুগ করে না পাওয়ায় তার সাক্ষাতকার নেয়া সম্ভব হয়নি।

এ ব্যাপারে সহকারী কমিশনার ভূমি মোঃ আরিফুর রহমান জানান, সরকারী পুকুর ভরাটে কর্তৃপক্ষের কোন অনুমতি নেই। যারা এই পুকুরটি ভরাট করেছেন তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়ার জন্য সিদ্ধান্ত হয়েছে এবং সার্ভেয়ার ও ইউনিয়ন সহকারী ভূমি কর্মকর্তাকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করতে নির্দেশ দিয়েছি।