মেইন ম্যেনু

কলারোয়ায় মোটর সাইকেলের ধাক্কায় ষাটোর্ধ বৃদ্ধা নিহত

road acc

কামরুল হাসান, কলারোয়া: সাতক্ষীরার কলারোয়ায় জালালাবাদ গ্রামের মৃত আব্দুল লতিফ সানার স্ত্রী ষাটোর্ধ তুরফান বিবি (৬২) মোটর সাইকেলের ধাক্কায় প্রাণ হারিয়েছেন। ঘটনাটি ঘটেছে বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে উপজেলার জালালাবাদ গ্রামে পাকা রাস্তার উপরে।

মৃত্যুকালে তিনি ২ ছেলে ৪ মেয়েসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। নিহতের ছোট ছেলে কলারোয়া বেত্রবতী আদর্শ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের পিয়ন ফারুক হোসেন জানান, বৃহস্পতিবার বিকেলে আমরা সবাই বাড়ির পাশে মাঠে ধান ক্ষেতে ব্যস্ত ছিলাম। আমার মা তখন বাড়ির সামনে রাস্তা দিয়ে যাওয়ার সময় দ্রুতগতি সম্পন্ন একটি মোটর সাইকেল তাকে সজোরে ধাক্কা দিয়ে পাকা রাস্তার উপর ফেলে দিয়ে দ্রুত চলে যায়।

সাথে সাথে খবর পেয়ে পরিবারের সদস্যরা তাকে কলারোয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে যান। এ সময় সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা: নাঈম সিদ্দীক আহতের মস্তিস্কে রক্তক্ষরণ হয়েছে জানতে পেরে দ্রুত সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে নেয়ার পরামর্শ দেন। দ্রুত তাকে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করা হয় । সেখানে চিকিৎসকদের সব চেষ্টা ব্যর্থ করে দিয়ে রাত সাড়ে ৮টার দিকে না ফেরার দেশে চলে যান ওই বৃদ্ধা। তবে ঘাতক সেই মোটর সাইকেল চালককে সনাক্ত করা সম্ভব হয়নি।

এদিকে, শুক্রবার পবিত্র জুম্মা নামাজের পর জালালাবাদ গ্রামে বাড়ির পাশের মসজিদের সামনে জানাযা নামাজ শেষে তাকে পারিবারিক কবরস্থানে কবরস্থ করা হয়। জানাযা নামাজ পরিচালনা করেন মসজিদের ঈমাম মাদরাসা সুপার আব্দুস সাত্তার। তাকে সহযোগিতা করেন বেত্রবতী হাইস্কুলের ধর্মীয় শিক্ষক আব্দুদ দাইয়ান।

জানাযা নামাজে উপস্থিত ছিলেন সাবেক অধ্যক্ষ রইছ উদ্দিন, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি প্রধান শিক্ষক আমানুল্লাহ আমান, বেত্রবতী হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক কলারোয়া প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক রাশেদুল হাসান কামরুল, সাবেক ইউপি সদস্য নুর ইসলাম, ইউপি সদস্য মশিয়ার রহমান, নজরুল ইসলাম, সোলায়মান গাজী, ফজলুর রহমান, সিরাজুল ইসলাম রাশেদ, রফিকুল ইসলাম, পচন, রফিকুল, উপজেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম সম্পাদক শেখ মারুফ আহম্মেদ জনি, রায়হান, উকিল, আকবর, ইমরানসহ বিপুল সংখ্যক মুসুল্লি ।