মেইন ম্যেনু

কুকুরের সঙ্গে যৌনমিলন করতে গিয়ে ধরা খেলো যুবতী, অতঃপর একি হলো…

11dog

কুকুরের সঙ্গে অনৈতিক সম্পর্ক স্থাপনের অভিযোগে জেনা লুইস ড্রিসকোল নামে এক নারীকে জেল দেয়া হতে পারে। এ ছাড়া তার বিরুদ্ধে রয়েছে মাদক সংক্রান্ত তিনটি অভিযোগ।

এরই মধ্যে তিনি মাদকের ডিলার হিসেবে পরিচিতি পেয়েছেন। এ ঘটনা ঘটেছে যুক্তরাষ্ট্রের কুইন্সল্যান্ডে। এ খবর দিয়েছে লন্ডনের অনলাইন দ্য এক্সপ্রেস। ২০১৪ সালের একটি অপরাধ সংক্রান্ত অভিযোগ তদন্ত করতে গিয়ে পুলিশ তার বিরুদ্ধে কুকুরের সঙ্গে অনৈতিক সম্পর্কের বিষয়টি জানতে পারে।

এতে ধরা পড়ে আরও কিছু অপরাধের ঘটনা। এসবই তার মোবাইল ফোনে ধারণ করা হয়েছিল। এতে দেখা যায় কুইন্সল্যান্ডের বাসায় অবস্থানকালে তিনি কমপক্ষে তিনটার ওই কুকুরের সঙ্গে অনৈতিক সম্পর্ক স্থাপন করেছেন।

সে দৃশ্য ধারণ করা হয়েছে তার মোবাইল ফোনে। ২০১৪ সালে তার বয়স যখন ২৪ বছর তখন তার বিরুদ্ধে এ অভিযোগ গঠন করা হয়েছিল। কিন্তু তিনি এতদিন আদালতের বাইরে ছিলেন। অবশেষে আইনজীবী জে৮মস গডবোল্টের সঙ্গে শুক্রবার আদালতে তিনি উপস্থিত হন।

এ সময় সারাক্ষণ তিনি মাথা নিচু করে রাখেন। বাইরে অপেক্ষমাণ সাংবাদিকদের দিকে একবারও চোখ মেলেন নি। আদালতে এদিন তার পক্ষে যুক্তিতর্ক তুলে ধরেন গডবোল্ট। তিনি বলেন, জেনা লুইস ড্রিসকোল তার বন্ধুর অনুরোধে কুকুরের সঙ্গে ওই সম্পর্ক স্থাপন করেছিলেন।

আর সেই দৃশ্য ক্যামেরায় ধারণ করেছিলেন তার বন্ধু। এ নিয়ে যখন অভিযোগের খবর চারদিক ছড়িয়ে পড়ে তখন লজ্জায় ড্রিসকোল ইউনিভার্সিটি অব সাউদার্ন কুইন্সল্যান্ডে যাওয়া বন্ধ করে দেন। আইনজীবী আরও বলেন, তার মক্কেল একটি বিশৃংখল পরিবারে বড় হয়েছেন।

বড় হয়েও তিনি বিশৃংখলাপূর্ণ একটি সম্পর্কে জড়িয়ে পড়েন। এ সম্পর্ক টিকে ছিল প্রায় ৬ বছর। তবে তার যুক্তির বিরুদ্ধে যুক্তি দাঁড় করেন প্রসিকিউটর জিনিতা বালিক। তিনি বলেন, ড্রিসকোলের বিরুদ্ধে পশুর সঙ্গে তিনটি যৌন হয়রানির সুনির্দিষ্ট অভিযোগ আছে।

এসব শোনার পর বিচারক টেরি মার্টিন আসামির এমন অপরাধকে প্রকৃতি বিরোধী বলে আখ্যায়িত করেন। তার বিরুদ্ধে শাস্তি ঘোষণার আগে পর্যন্ত বিচার বিভাগীয় হেফাজতে পাঠানো হয়েছে।দ্য এক্সপ্রেস