মেইন ম্যেনু

কেন “চালাক” মানুষেরা সহজে প্রেমে পড়ে না?

আমাদের আবেগ আমাদেরকে পরিচালিত করে খুবই জটিল ভাবে। সবসময় আমরা তার সব সূত্র ধরতে পারি না। এমন কি হয় না যে, আমাদের খুবই মন খারাপ। কিন্তু আমরা নিজেরাই জানি না কী কারণে আমাদের খারাপ লাগছে। আবার কখনো ভালবাসার মানুষটি চলে যাওয়ার পর আমরা টের পাই জীবনে তাকেই সবচেয়ে বেশী দরকার ছিল। আবার উল্টোটাও ঘটে। যাকে ছাড়া বাঁচতেই পারব না বলে বোধ হয়, তাকে ছাড়াও দিব্যি জীবন কেটে যায়।

অনেক সময় আমরা বিশ্বাস করতে অনেক সময় নিই। কখনো নিজেকে বিশ্বাস করি না, আবার কখনো বিশ্বাস করি না ভালবাসার মানুষকে। বিশ্বাস-অবিশ্বাসের পরীক্ষা নিতে নিতে অনেক সময় চলে যায়। সুন্দর একটা সম্পর্কের সম্ভাবনা নষ্ট হয়ে যায়। চতুর মানুষদের সাথে কি এই ঘটনাই ঘটে? কেন তাদের জন্য কঠিন হয়ে যায় নিজের জীবনের সেই মানুষটিকে পাওয়া? আসুন জেনে নিই, বিজ্ঞানীরা কী বলেন।

তারা অনুভূতিকে বিশ্লেষণ করে
চতুর ব্যক্তিরা অন্যকে বুঝতে, আচরণ বিচার করতে, অনুভূতির অর্থ খুঁজতে খুবই পারদর্শী হয়। তারা সারাক্ষণই নিজেকে এবং অন্যকে বিশ্লেষণ করতে থাকে। এই বিশ্লেষণ মানসিকতার সুবিধা-অসুবিধা দুই-ই আছে। কারণ তারা একটি স্থিতিশীল সম্পর্কে বেশীদিন টিকে থাকতে পারে না। কোন সমস্যা দেখলেই তাদের পলায়নপর মানসিকতা জেগে ওঠে। বার বার ভুলবোঝাবুঝি, ঝগড়া? তখনই তাদের মনে হতে থাকে “আমরা একজন আরেকজনের জন্য নই”।

নিজেকে প্রকাশ করতে তাদের অনেক সময় লাগে
আমাদের মস্তিষ্ক কখনোই কাজ করা বন্ধ করে না। সে সবসময় রহস্য উন্মোচন করতে চায়। কিন্তু কিছু বিষয় যখন অজ্ঞাত থাকে তখন সেটা বুদ্ধিমান মানুষেরা মেনে নিতে পারে না। বিশ্বাস করতে তাদের অনেক সময় লাগে। তাই মন খুলে নিজের কথা বলতে, নিজেকে তুলে ধরতে তাদের অনেক সময় লাগে। এতে অপর মানুষটিও সবটা বিশ্বাস করতে পারে না। দূরত্ব রয়েই যায়!

তারা আগের অভিজ্ঞতার সাথে মিলিয়ে দেখে
আগের সম্পর্কটি যে কারণে নষ্ট হয়ে গেছে এবারও তেমনই হবে এমন কোন কথা নেই। কিন্তু স্মার্ট মানুষেরা পূর্ব অভিজ্ঞতার তিক্ততা থেকে নিজেকে বের করে আনতে পারেন না। তারা সারাক্ষণই মনে করতে থাকে্ন আগেকার সম্পর্কটি ভেঙ্গে যাওয়ার সময় তারা যেমন কষ্ট পেয়েছেন আবারও তেমন কষ্ট পাবেন। সব সময় সতর্কতা তাদেরকে সম্পর্কের শুদ্ধ স্বাদ দেয় না।

একা থাকাই তাদের পছন্দ
এটাই মূল কথা। চতুর মানুষেরা একা থাকতেই বেশী স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করে। অন্য কারও সাথে মানিয়ে চলাটা তাদের কাছে একটি যন্ত্রণা। তারা কাউকে ততটা আপন হিসেবে গ্রহণ করতে পারে না যতটা আপন ভাবলে নিজের অনেক কিছুই ছাড় দেওয়া যায়। একা থাকার ইচ্ছা সচেতন, অবচেতন দুই ভাবেই তাদের মাঝে লালিত হতে পারে। কিন্তু পরিশেষে ফলাফল এটাই যে, বেশীরভাগ চতুর লোকেরা একা থাকেন কারণ তারা একা থাকতেই ভালবাসেন।