মেইন ম্যেনু

কোক, পেপসিসহ পাঁচ পানীয়তে বিষাক্ত পদার্থ

soft-drinks

কোমল পানীয় হিসেবে পরিচিত পেপসি, কোকাকোলা, মাউন্টেন ডিউ, স্প্রাইট ও সেভেন আপে বিষাক্ত পদার্থের উপস্থিতি পাওয়া গেছে। ভারত সরকারের পক্ষ থেকে করা পরীক্ষায় এই ফল পাওয়া গেছে। বহুজাতিক প্রতিষ্ঠান পেপসিকো ও কোকাকোলা এসব পানীয় উৎপাদন ও বাজারজাত করে।

পরীক্ষার ফলাফলে বলা হয়, এই পানীয়গুলোতে মানবদেহের জন্য ক্ষতিকর মাত্রায় সীসা, ক্যাডমিয়াম, ক্রোমিয়ামসহ বিভিন্ন পদার্থ পাওয়া গেছে।

দ্য ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস জানিয়েছে, স্বাস্থ্যমন্ত্রণালয়ের আওতাধীন ড্রাগ টেকনিক্যাল অ্যাডভাইসরি বোর্ডের (ডিটাব) নির্দেশনা ও তত্ত্বাবধানে পরীক্ষার কাজটি করে অল ইন্ডিয়া ইনস্টিটিউট অব হাইজিন অ্যান্ড পাবলিক হেলথ। চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি-মার্চে নমুনা সংগ্রহ করা হয়। ৬০০ মিলিলিটারের বোতল নমুনা হিসেবে সংগ্রহ করা হয়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, কোকাকোলা ও পেপসিকোর ওই পানীয়গুলোতে ক্ষতিকর মাত্রায় সীসা, ক্যাডমিয়াম, অ্যান্টিমনি, ক্রোমিয়াম, ডিইএইচপি পাওয়া যায়।

এ ব্যাপারে পেপসিকো ইন্ডিয়ার মুখপাত্র জানিয়েছেন, পরীক্ষার পদ্ধতি সম্পর্কে না জেনে এ ব্যাপারে এখনই মন্তব্য করা যাচ্ছে না। এদিকে কোকাকোলায় এ ব্যাপারে জানতে চাইলে, প্রতিষ্ঠানটি কিছু জানায়নি।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জনস্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর যে ১০টি পদার্থের কথা জানিয়েছে এর মধ্যে শীর্ষে আছে সীসা ও ক্যাডমিয়াম।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা জানিয়েছে, শিশু স্বাস্থ্যের জন্য সীসা খুবই ঝুঁকিপূর্ণ। বেশিমাত্রায় সীসার সংস্পর্শে মস্তিষ্কে ও স্নায়ুতন্ত্রে ব্যাপক ক্ষতি হয়। সীসার কারণে শিশুর মানসিক সমস্যাও হতে পারে।

অন্যদিকে ক্যাডমিয়াম সরাসরি কিডনির ক্ষতি করে। একইসঙ্গে শ্বাসতন্ত্রের জন্য ক্যাডমিয়াম বেশ ক্ষতিকর।