মেইন ম্যেনু

ক্লাসিকোর আগে ফের বার্সার হোঁচট

আগামী শনিবার ঘরের মাঠে এল ক্লাসিকোতে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী রিয়াল মাদ্রিদের মুখোমুখি হবে বার্সেলোনা। গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচটির আগেই ছন্দহীন হয়ে পড়েছে বার্সা। রোববার রাতে রিয়াল সোসিয়েদাদের সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র করেছে লুইস এনরিকের দল। ফলে শীর্ষে থাকা রিয়াল ছয় পয়েন্টের পরিষ্কার ব্যবধানে এগিয়ে থাকল।

এর আগে গত সপ্তাহে ঘরের মাঠে মালাগার সঙ্গে গোলশূন্য ড্র করেছিল বার্সেলোনা। রোববারের প্রতিপক্ষের মাঠে করা ড্র দলটিকে আরো চাপের মুখে ফেলে দিল।

সান সেবাস্তিয়েনের মাঠ যেন রীতিমতো বার্সেলোনার জন্য বধ্যভূমিতে পরিণত হয়েছে। এর আগে রিয়াল সোসিয়েদাদের মাঠে আগের সর্বশেষ চার ম্যাচেই হার নিয়ে মাঠ ছাড়ে বার্সা। রোববারের ড্রয়ে ৯ বছর ধরে সান সেবাস্তিয়েনের জয়হীন রইলো ন্যু-ক্যাম্পের দলটি।

প্রতিপক্ষের মাঠে খেলার প্রথমার্ধে লিওনেল মেসি, লুইস সুয়ারেজ ও নেইমারের সমন্বয়ে গঠিত এমএসএন-ত্রয়ী অনেকটাই নিষ্প্রভ ছিল। রিয়াল সোসিয়েদাদের দাপটে অনেকটাই কোণঠাসা ছিল এনরিকের দল। তবে রিয়াল সোসিয়েদাদ বেশ কয়েকটি আক্রমণ করলেও সাফল্যের মুখ দেখেনি।

বিরতির পর গোলের জন্য মরিয়া হয়ে পড়ে বার্সেলোনা। তবে ৫৩তম মিনিটে এগিয়ে যায় রিয়াল সোসিয়েদাদই। কার্লোস ভেলার ধারাবাহিক আক্রমণ হাভিয়ের মাসচেরানোকে ভুল করতে বাধ্য করে। মাসচেরানোকে ফাঁকি দিয়ে ভেলার নেওয়া শট রুখে দিলেও বিপদমুক্ত করতে পারেননি গোলরক্ষক মার্ক টের স্টেগেন। ফিরতি বলে উইলিয়াম জেসের হেড জেরার্ড পিকের গায়ে লেগে জালে আশ্রয় নিলে সান সেবাস্তিয়েনের স্বাগতিক দর্শকরা উল্লাসে মেতে ওঠেন।

ছয় মিনিট পর বার্সেলোনা শিবিরে স্বস্তি ফেরান মেসি। বাম দিক থেকে নেইমারের বুদ্ধিদীপ্ত পাসে দারুণ ফিনিশিংয়ে রুলিকে ফাঁকি দিয়ে বল জালে পাঠিয়ে বার্সাকে সমতায় ফেরান আর্জেন্টাইন সুপারস্টার।

৭৬তম মিনিটে ভেলার নেওয়া বুলেটগতির শট অল্পের জন্য ক্রসবারের ওপর দিয়ে চলে গেলে হতাশ হতে হয় রিয়াল সোসিয়েদাদকে। কিছুক্ষণ পর জোয়ানমি বল জালে পাঠিয়ে দিলেও রেফারি অফসাইডের কারণে গোলটি বাতিল করে দেন।

সোসিয়েদাদের প্রতিরোধের মুখে গোলের জন্য মরিয়া ছিল বার্সেলোনা। তবে একের পর এক আক্রমণ করেও সাফল্যের মুখ দেখেনি কাতালানরা। ফলে টানা দ্বিতীয় ড্রয়ে শিরোপা ধরে রাখার অভিযানে বড় ধরনের হোঁচট খেল এনরিকের দল।

এই ড্রয়ের ফলে ১৩ ম্যাচ শেষে ২৭ পয়েন্ট নিয়ে টেবিলের দুই নম্বরে রয়েছে বার্সেলোনা। সমান ম্যাচে ৩৩ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে রিয়াল মাদ্রিদ। বার্সার সমান ২৭ পয়েন্ট নিয়ে গোল-ব্যবধানে পিছিয়ে থেকে সেভিয়ার অবস্থান তিনে। অন্যদিকে অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ ২৪ পয়েন্ট নিয়ে চারে অবস্থান করছে।