মেইন ম্যেনু

খাদিজাকে কেবিনে স্থানান্তর

ed3be6d0038e1264d89b251d974ebe67-1-1-04-10-16-khadiza-1

রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন সিলেট সরকারি মহিলা কলেজের শিক্ষার্থী খাদিজা আক্তার নার্গিসকে হাই ডিপেন্ডেন্সি ইউনিট (এইচডিইউ) থেকে কেবিনে স্থানান্তর করা হয়েছে।

তাকে বুধবার রাত সাড়ে ১১টার পর কেবিনে স্থানান্তর করা হয় বলে নিশ্চিত করেছেন তার বাবা মাসুক মিয়া।

মাসুক মিয়া বলেন, ‘নার্গিসের শারীরিক অবস্থা আগের চেয়ে কিছুটা ভালো। তার অবস্থা দিন দিন আরো উন্নত হবে বলে চিকিৎসকরা জানিয়েছেন।’

স্কয়ার হাসপাতালের সার্জারি বিভাগের ডাক্তার এএম সাত্তার জানান, তাকে রাতে কেবিনে স্থানান্তর করা হয়েছে। এখন সবাইকে দেখতে পারবে। সবার সাথে কথা বলার চেষ্টাও করবে। এতে তার স্মরণশক্তি হয়ত ধীরে ধীরে বাড়তে অনেকটা সহায়ক হবে।

নার্গিসের শারীরিক অবস্থা সম্পর্কে জানতে চাইলে হাসপাতালের মেডিসিন অ্যান্ড ক্রিটিক্যাল কেয়ারের পরিচালক মির্জা নাজিম উদ্দিন বলেন, ‘প্রতিদিনই একটু একটু করে নার্গিসের শারীরিক অবস্থার উন্নতি হচ্ছে। তরল জাতীয় খাবার তাকে দেওয়া হচ্ছে।’

তিনি আরো জানান, তার বাম হাত ও পায়ের জন্য সাধারণ ব্যায়াম করতে বলা হয়েছে।

৩ অক্টোবর বিকেলে এমসি কলেজ ক্যাম্পাসে প্রকাশ্যে নার্গিসকে কুপিয়ে জখম করে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক বদরুল আলম। ঘটনার ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ হলে প্রতিবাদে জেগে ওঠে সিলেটসহ সারাদেশ। পরদিন সকালে জরুরি ভিত্তিতে নার্গিসকে সিলেট থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকার স্কয়ার হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। এ ছাড়া গ্রেফতার করা হয় বদরুলকে।