মেইন ম্যেনু

গ্যালাক্সি নোটের পর এবার স্যামসাং ওয়াশিং মেশিনেও বিস্ফোরণ, কী বলছে কর্তৃৃপক্ষ?

1478411491

আবার বিপাকে স্যামসাং। কিছুদিন আগেই তাদের গ্যালাক্সি সিরিজের ফোন নিয়ে বিস্ফোরণের আশঙ্কা তৈরি হয়েছিল। আর এবার বিস্ফোরণের আশঙ্কা তৈরি হল তাদের ওয়াশিং মেশিন নিয়ে।

শোনা যাচ্ছে, যে কোনও সময় নাকি ফেটে যেতে পারে স্যামসাং কোম্পানির ওয়াশিং মেশিন। এই আশঙ্কায় প্রায় ৩০ লক্ষ টপ-লোড ওয়াশিং মেশিন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বাজার থেকে তুলে নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে স্যামসাং ইলেকট্রনিক্স।

একটি আন্তর্জাতিক সংবাদসংস্থায় প্রকাশিত সংবাদ অনুযায়ী, এই ত্রুটিযুক্ত ওয়াশিং মেশিন ব্যবহারের সময় বিস্ফোরণ ঘটলে, যিনি ব্যবহার করছেন তাঁর প্রাণহানির আশঙ্কাও থাকছে। এই তথ্য জানিয়েছে ইউএস কনজিউমার প্রোডাক্ট সেফটি কমিশন৷ ইতিমধ্যেই মার্কিন মুলুকে স্যামসাং-এর ত্রুটিযুক্ত ওয়াশিং মেশিন বিস্ফোরণে প্রায় ন’জন আহত হয়েছেন বলে জানা গিয়েছে৷ এই মেশিনগুলি ২০১১ সালের মার্চ মাস থেকে চলতি বছরের নভেম্বরের মধ্যে বাজারে এনেছিল স্যামসাং ইলেকট্রনিক্স৷ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ত্রুটিযুক্ত স্যামসাং ওয়াশিং মেশিন ব্যবহারের ফলে চোয়াল ভেঙে, কিংবা হাত খুইয়ে অনেকেই আহত হয়েছেন বলে উঠেছে অভিযোগ।

বিশ্বের সেরা স্মার্টফোন প্রস্তুতকারক সংস্থাগুলির মধ্যে স্যামসাং-এর অবস্থান যে উপরের দিকে, তা বলাই বাহুল্য। তবে তাদের বানানো গ্যালাক্সি নোট সেভেন-এর বিরুদ্ধে কিছুদিন আগে বিস্ফোরণের অভিযোগ ওঠায় শেষ পর্যন্ত দক্ষিণ কোরীয় সংস্থাটি বাজার থেকে প্রায় ২৫ লক্ষ স্মার্টফোন তুলে নিতে বাধ্য হয়েছিল। অভিযোগ ছিল, ওই স্মার্টফোনগুলির ব্যাটারি গরম হয়ে ফেটে যাচ্ছে৷ ফোনের পর এবার ওয়াশিং মেশিনের বিরুদ্ধে একই অভিযোগ। অবশ্য এই প্রসঙ্গে ইতিমধ্যেই একটি প্রেস বিবৃতি জারি করেছে স্যামসাং।

সেখানে বলা হয়েছে, ত্রুটিযুক্ত ওয়াশিং মেশিনগুলি ছাড়া এই সিরিজের অন্য ওয়াশিং মেশিনের বিরুদ্ধে কোনও অভিযোগ থাকলে সংস্থা তা বিনামূল্যে মেরামত করে দেবে। এবেলা।