মেইন ম্যেনু

ছোট্ট চারটি অভ্যাসে সুস্থ রাখুন চোখ

health-tips43

চোখ ভালো রাখতে কে না চায় বলুন? শরীরের অন্য যে কোন অঙ্গের চাইতে দৃষ্টিশক্তি হারানোর ভয় বেশি পাই আমরা। কিন্তু চোখ থাকতে চোখের মর্যাদা আসলে আমরা অনেকেই বুঝি না। দৈনন্দিন জীবনেই এমন অনেক কাজ আমরা করে থাকি যাতে আমাদের দৃষ্টিশক্তি ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এই কারণে শরীরের যত্ন যেমন নিয়ম করে নেই, তেমনিভাবে চোখের যত্ন নেওয়াটাও জরুরী। জেনে নিন চোখের যত্ন নেওয়ার ছোট্ট কিছু কৌশল।

১) চোখের জন্য উপকারী খাবার খান

ভয় নেই, সারাদিন কচকচ করে গাজর চিবিয়ে খেতে হবে না। বরং চোখের জন্য ভালো এমন বেশ কিছু খাবার আছে, এগুলোকেই আপনি খেতে পারেন। লুটেইন এবং জিয়াজ্যান্থিন এই দুইটি অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকে সবুজ শাক, ব্রাসেলস স্প্রাউট এবং ভুট্টায়। নিয়মিত এসব খাবার খেলে ছানি বা ক্যাটারাক্টের ঝুঁকি কমে যায় ৩২ শতাংশ পর্যন্ত। এছাড়াও গাজর, ব্রকোলি, পালং শাক, সামুদ্রিক মাছ চোখের জন্য ভালো। আর অবশ্যই ধূমপান থেকে দূরে থাকবেন। এটা আপনার সার্বিক স্বাস্থ্যের পাশাপাশি চোখেরও বারোটা বাজায়।

২) ব্যায়াম করুন

গবেষণায় দেখা যায়, ব্যায়াম গ্লুকোমা এড়াতে সহায়ক। একটি ব্রিটিশ গবেষণায় দেখা যায়, দৈনিক এক ঘণ্টার বেশি ব্যায়াম করলে গ্লুকোমার ঝুঁকি কমে ২৫ শতাংশের মতো। এছাড়াও আপনি চোখের বিশেষ কিছু ব্যায়াম করতে পারেন যেগুলো দৃষ্টিশক্তির জন্য উপকারী। চশমা ছাড়াই স্পষ্ট দেখার এই কৌশলটি ব্যবহার করে দেখতে পারেন।

৩) রোদ থেকে রক্ষা করুন

ত্বকের যত্নে সানস্ক্রিন মেখে বাইরে যাচ্ছেন ভালো কথা। চোখের যত্নে সানগ্লাসটাকে নিয়ে নিতেও ভুলবেন না কিন্তু। সূর্যের যে আল্ট্রাভায়োলেট রশ্মি আমাদের ত্বককে বুড়িয়ে দইতে পারে, সেটাই আবার আমাদের চোখের ভীষণ ক্ষতি করতে পারে। মোটামুটি ৫-১০ শতাংশ ছানির জন্য দায়ী হলো রোদের ক্ষতি। 100% UV Protection আছে এমন সানগ্লাস ব্যবহার করুন।

৪) চোখের পাতা ফেলুন

ইদানিং আমাদের জীবনের সাথে জড়িয়ে গেছে ইলেক্ট্রনিকস এবং ফলশ্রুতিতে আমাদের চোখ প্রায়ই শুকিয়ে থাকে। এটা শুনতে খুব সাধারণ মনে হলেও কারও কারও ক্ষেত্রে চোখের এই শুকিয়ে যাওয়াটা বেশ খারাপ পরিস্থিতিতে গড়াতে পারে। তাদের চোখের পানি ঠিকমতো উৎপাদন হয় না বা উৎপাদন হলেও শুকিয়ে যায়। এর পেছনে কারণ হিসেবে দেখা যায়, এসব মানুষ খুব কম চোখের পাতা ফেলেন। আমরা সাধারণত মিনিটে ১৫-২০ বার চোখের পাতা ফেলি। কিন্তু ইলেকট্রনিক ডিভাইস ব্যবহার করলে এই সংখ্যাটা কমে অর্ধেক হয়ে যায়। কম্পিউটারের সামনে অনেকটা সময় কাটাতে হলে অবশ্যই নিজেকে বারবার চোখের পলক ফেলার কথা মনে করিয়ে দেবেন।

এগুলো ছাড়াও কিছু টুকিটাকি অভ্যাস আমাদের চোখের উপকার করতে পারে, যেমন-

  • ঘুমাতে যাবার আগে চোখ থেকে কন্ট্যাক্ট লেন্স খুলে জায়গামত রাখা
  • দরকার ছাড়া ইলেক্ট্রনিকস ব্যবহার না করা
  • চোখ অতিরিক্ত ঘষাঘষি না করা
  • মেকআপ ব্রাশ নিয়মিত পরিষ্কার করা ও ভালো মানের মেকআপ ব্যবহার
  • মনে রাখবেন, দৃষ্টিশক্তি ঠিক না থাকলে আপনার দৈনিক জীবনটা অনেকটাই কঠিন হয়ে যাবে। তাই চোখের যত্ন নিন, আর যে কোনো সমস্যা দেখা দিলে চোখের ডাক্তারের সাথে যোগাযোগ করুন।