মেইন ম্যেনু

জিম ব্যবহারেও রয়েছে নিয়ম-কানুন, জেনে নিন সেগুলো

105939gym_2

১. যন্ত্রগুলো মুছে নিন
নিজের কাছে ছোট তোয়ালে না থাকলেও জিমনেশিয়ামে ব্যবহারের জন্য তোয়ালে থাকে। ব্যায়ামের যন্ত্রপাতি ব্যবহারের আগে মুছে নিন। ব্যবহারের পরও মুছে রাখুন।

২. ক্লাসে বিলম্ব করবেন না
সেখানে ইয়োগা বা অন্য কোনো ক্লাসে ভর্তি হয়ে থাকলে বিলম্ব করে উপস্থিত হবেন না। এটা অন্যদের জন্য বিরক্তিকর বিষয়। তাই সময়মতো তো বটেই, পারলে কিছুক্ষণ আগে উপস্থিত হবেন। সেখানে নিজের জন্য সুবিধাজনক অবস্থান বেছে নিন। ক্লাসে মন দিন।

৩. ওজন দূরে রাখুন
না বুঝে না জেনে ওজন ব্যবহার করতে যাবেন না। প্রশিক্ষকের কাছ থেকে বুঝে নিন। নয়তো তা আপনার স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর হবে।

৪. ওজনগুলো সঠিক স্থানে রাখুন
ব্যায়ামের উপকরণ সব সাজানো থাকে। কাজেই ব্যবহারের পর আপনিও তা যথাস্থানে রেখে দিন। যদি দেখেন এখানে-সেখানে এলোমেলো ওয়েট বার পড়ে রয়েছে, তো নিজেই তা তুলে জায়গামতো রেখে দিন।

৫. দখল করে রাখবেন না
কোনো যন্ত্রের ব্যবহার শেষ করতে আপনার কিছুটা সময় লাগতে পারে। তাই বলে এটা দখল দিয়ে রাখবেন না। অন্যকেও ব্যবহারের সুযোগ দিন। ব্যায়াম করা অবস্থায় অযথাই ফেসবুক বা ইনস্ট্রাগ্রামে সময় ব্যয় করবেন না। সেলফি তোলা থেকে বিরত থাকুন।

৬. লকার স্পেসও দখল নেবেন না
লকার রুমে চুপচাপ থাকুন। ময়লা ফেলবেন না। আপনার ব্যক্তিগত জিনিসপত্র যেখানে-সেখানে ফেলে রাখবেন না। শব্দ করেও কোনো কাজ করবেন না, যাতে অন্যরা বিরক্ত হয়।

৭. ফোনটি লকারে রাখুন
ব্যায়াম করা অবস্থায় ফোনে কথা বলবেন না। স্মার্টফোনটি লকারে রেখে কাজ শুরু করুন। শরীরচর্চায় আরো মনোযোগী হতে আপনাকে সহায়তা করে লকার রুম, যদি তা কাজে লাগান।

৮. গানের ক্ষেত্রে সাবধান
অনেকে মোবাইলে গান শুনতে শুনতে ব্যায়াম করেন। অন্যদের বিরক্ত করে এ কাজটি করবেন না। হেডফোনেই গান শুনুন এবং ব্যায়াম করুন। আবার হেডফোনে খুব জোরে গান শুনবেন না। এতে পাশের মানুষটির সমস্যা হতে পারে।

৯. উচ্চস্বরে কথা নয়
কারো সঙ্গে কথা বলার সময় কণ্ঠ নামিয়ে কথা বলুন। ওজনদার উপকরণগুলো জোরে মেঝেতে ফেলবেন না। যেকোনো ধরনের শব্দ তৈরি থেকে যতটা সম্ভব বিরত থাকার চেষ্টা করুন।

১০. ভদ্র আচরণ করুন
সবার সঙ্গে ভালো ব্যবহার করুন। পুরনো হয়ে থাকলে নতুনদের উষ্ণ অভ্যর্থনা জানান। কেউ কিছু বুঝে উঠতে না পারলে বোঝানোর চেষ্টা করুন।

–হিন্দুস্তান টাইমস অবলম্বনে সাকিব সিকান্দার