মেইন ম্যেনু

জেনে নিন, বাড়তি লবণ শরীরের জন্য কতটা ক্ষতিকারক!

1478805474

লবণ প্রীতি বা লবণ প্রেম। জড়িয়ে রয়েছে বাঙালির অস্থি মজ্জায়। কিন্তু বাড়তি লবণ যে শরীরের জন্য কতটা ক্ষতিকারক তা আমরা অনেকেই জানি না। ওয়ার্ল্ড হেল্থ অর্গানাইজেশন বা হু এর সাম্প্রতিক গবেষণা এই লবণ নিয়েই তুলে ধরেছে আশঙ্কার পরিসংখ্যান।

লবণের বিপদ

* সমীক্ষায় দেখা গেছে, গড়পড়তা বাঙালির পাতে থাকে প্রয়োজনের দ্বিগুণ লবণ। তৈরি হয় হৃদরোগের সম্ভাবনা

* অকাল মৃত্যুরও কারণ হতে পারে বাড়তি লবণ খাওয়ার অভ্যাস

* লবণ ১৯ উর্দ্ধ ভারতীয়রা রোজ ১০.৯৮ গ্রাম লবণ খান

* হু-এর গাইডলাইন অনুযায়ী খাওয়া উচিত রোজ ৫ গ্রাম লবণ

* দক্ষিণ ও পূর্বাঞ্চলের রাজ্যগুলিতেই লবণ খাওয়ার প্রবণতা বেশি

* দিনে ১৪ গ্রামেরও বেশি নুন খান এ ত্রিপুরার বাসিন্দারা

খাদ্য বিশেষজ্ঞরা বলছেন,গত ৩০ বছরের খাদ্যাভ্যাসে আমূল পরিবর্তন এসেছে খাদ্যশষ্য, শাক সবজি, ফলমূলের পরিবর্তে খাদ্যতালিকায় জাঁকিয়ে বসেছে প্রক্রিয়াজাত খাদ্য, ফাস্ট ফুড। এইসব খাবারে লবণের পরিমাণ থাকে অনেকটাই বেশি শর্করা ও ফ্যাটের পরিমাণও থাকে বিপদসীমার ওপরে।

বাসা বাঁধছে রোগ: জাঙ্ক ফুডে থাকে অতিরিক্ত লবণ, শর্করা, ক্ষতিকর ফ্যাট। আর এর থেকেই তৈরি হচ্ছে হাই ব্লাড প্রেসার, শরীরে জমা হচ্ছে অপ্রয়োজনীয় ফ্যাট, বাড়ছে হৃদরোগের সম্ভাবনা। সাম্প্রতিক পরিসংখ্যানে দেখা যাচ্ছে, হৃদরোগে আক্রান্ত হয়েই প্রতিবছর ২ কোটি ৩০ লাখ মানুষের মৃত্যু হয় ভারতবর্ষে।

২০৩০ সালে হাই ব্লাড প্রেসারে ভোগা রোগীর সংখ্যা দাঁড়াবে ২১ কোটি ৩০ লক্ষ যার নেপথ্যে রয়েছে লবণের বিষাক্ত ভূমিকা লবণ একটা সময় পর্যন্ত শরীরের পক্ষে ভাল। তবে বাড়তি লবণ খাওয়ার অভ্যাস প্রতিদিন একটু একটু করে এগিয়ে দিচ্ছে সর্বনাশের দিকে।-জিনিউজ