মেইন ম্যেনু

জেনে নিন, মা-বাবার যে ৫টি ভুলে সন্তানের ক্ষতি হয়

আদর্শ বাবা-মা হয়ে ওঠা কিন্তু মুখের কথা নয়৷ সন্তানকে শুধু বড় করে তোলাই তাদের কাজ নয়৷ কোনটা ভুল কোনটা ঠিক সেই শিক্ষা দেওয়াও বাবা-মায়ের কাজ৷ তবে আপনি কি জানেন আপনার কিছু ভুলের মাশুল দিতে হতে পারে আপনার সন্তানকে? এবার সেই ভুলগুলো দেখে নেওয়া যাক।

ভুল ১- নিজের শিক্ষা নিজে না মানা : আপনি আপনার খুদেকে ভালো শিক্ষা দেবেন সেটাই তো কাম্য৷ কিন্ত্ত খুদেটি যদি বাস্তবে আপনাকে সেই শিক্ষা মানতে না দেখে তাহলে সে মানবে কেন? যেমন ধরুন ‘মিথ্যে বলবে না’ এটা বাচ্চাকে শেখালেন৷ কিন্ত্ত বাচ্চার সামনেই মিথ্যে বললেন৷ এরকম করলে বাচ্চা ছোট মাথা ঘেঁটে যাবে৷ সে বুঝতে পারবে না কোনটা ঠিক কোনটা বেঠিক৷ ফলে আপনি যেরকমটা করলেন সেও সেটাই করবে৷ যেটা কখনোই কাম্য নয়৷

ভুল ২- নিজেদের ইচ্ছা খুদের কাঁধে চাপানো : পাইলটের চাকরি পাওয়া সত্ত্বেও যেতে পারেননি বাবা যেতে দেননি বলে৷ ফলত আজ দশটা পাঁচটার অফিসযাত্রী আপনিও৷ কিন্ত্ত সেই জন্য আমার ছেলে পাইলট হবে ভাবলে আপনিও তো নাক ঘুরিয়ে আপনার বাবা যেমন করেছিলেন সেটাই করলেন৷ ‘থ্রি ইডিয়েটস’ ছবির ফারহান কুরেশি মনে পড়ে? আপনি নিশ্চয়ই চান না ছেলে নাস্তানাবুদ হোক৷ তার চেয়ে বরং খুদে কি করবে তাকেই ভাবতে দিন৷ যেমনটা ভালো লাগে সেই চাকরি করতে পারলে উন্নতি অবশ্যম্ভাবী৷

ভুল ৩- অতিরিক্ত আগলে রাখা : সন্তানকে রক্ষা করা বাবা মায়েরই কাজ৷ তবে অনেকেই রয়েছেন যারা নিজেদের সন্তানকে অতিরিক্ত আগলে রাখেন৷ সারাজীবন তো আপনি ওর পাশে থাকতে পারবেন না৷ পরিস্থিতির সঙ্গে কিভাবে যুঝতে হয় সেটা ওকে শিখতে দিন৷ বাচ্চাকে কাটাছড়ার ভয়ে বাইরে খেলতে যেতে দিলেন না এবং ভিডিও গেম নিয়ে সেও মত্ত হয়ে গেল৷ এতে সে লোকের সঙ্গে কিভাবে মিশতে হয় সেটা তো শিখলোই না বরং ওই ভিডিও গেমের প্রতি আসক্ত হয়ে পড়ল৷ ভবিষ্যতে অবশ্য আপনি খুদেকেই দোষ দিতে চলেছেন৷ ভালো করে ভেবে দেখুন তো দোষটা কার৷

ভুল ৪- খুব সহজেই আবদার মেটানো : বাচ্চা যা চাইছে সেটা পরমুহূর্তে তার হাতের কাছে এনে দেওয়া আজকালকার বাবা মায়েদের অভ্যাস হয়ে দাঁড়িয়েছে৷ একবার ফ্ল্যাশব্যাকে গিয়ে ভাবুন তো আপনার প্রিয় ডেনিমটার জন্য কতদিন বাবার কাছে সাধ্যসাধনা করতে হয়েছিল? অনেক খাটাখাটনির পর যখন ডেনিম পেলেন তখন কতটা আনন্দ হয়েছিল আপনার? সেই আনন্দ থেকে আপনার সন্তান পুরোপুরি বঞ্চিত৷ যে কোনও জিনিস যে কোনও সময়ে হাতের সামনে পেয়ে যাচ্ছে বলে সবকিছু খুব সহজলভ্য ওর কাছে৷ আর দামি ল্যাপটপ থেকে ঘড়ি, ব্র্যান্ডেড জামাকাপড় সবই যদি আপনি কিনে দেন তাহলে ও নিজে কি কিনবে?

ভুল ৫- নিজের ভুলগুলো লুকিয়ে রাখা : ভুল মানুষমাত্র হয়৷ আপনি নিজের ভুল আবডালে রাখছেন কেন? বরং সন্তান যাতে আপনার ভুলের পুনরাবৃত্তি না ঘটায় সেই জন্য নিজের ভুলগুলো এবং তার ফল সন্তানকে বলুন৷ যাতে সে একই জিনিস না করে ফেলে৷ আপনার সিগারেটের আসক্তি যে ভুল এবং তার ফল কত মারাত্মক হতে পারে সেটা সন্তানকে বললে সে সিগারেট খাওয়ার ভুল করবে না৷ ইন্ডিয়া টাইসম