মেইন ম্যেনু

জেলেদের জালে ২০০ মন ওজনের মাছ!

গভীর সাগরে জেলের জালে ধরা পড়েছে বিশাল আকারের সামুদ্রিক প্রাণী। কেউ বলছে হাঙ্গর কেউ বলছে ‘পানিয়াল’ বা তিমি মাছ।

উপকূলে নিয়ে এসে ক্রেতা খুঁজে না পেয়ে ১৬ ফিট ও দৈর্ঘ্য সাড়ে ২৬ ফিট আকৃতির সামুদ্রিক প্রাণীটি পাথরঘাটায় একটি খালে ফেলে রাখে জেলেরা।

উপজেলা নিবার্হী অফিসার বলেন, প্রানীটি অনেক বড় হওয়ায় গর্ত বানাতে প্রচুর মাটি কাটতে হবে তাই বরগুনা জেলা মৎসজীবী ট্রলার মালিক সমিতির সভাপতিকে সহযোগিতার জন্য বলা হয়েছে।

তিনি বলেন, মাছটির কঙ্কাল গবেষকদের প্রয়োজন হতে পারে তাই মাটি চাপা দিয়ে রাখা হবে।

এফবি ‘মা জননী’ ট্রলারের মাঝি নজরুল ইসলাম জানান, গভীর সাগরে মাছ ধরার সময় মঙ্গলবার বিকালে প্রাণীটি তাদের জালে আটকা পড়ে। পড়ে ট্রলারের সঙ্গে বেঁধে ২৩ ঘণ্টা চালিয়ে বুধবার বিকালে পাথরঘাটায় আনা হয়েছে।

ওই ট্রলারের জেলে হানিফ,জালাল ও রুস্তম দু:খ প্রকাশ করে বলেন, অনেক আশা নিয়ে ঘাটে এসে মাছটির কোনো ক্রেতা পেলাম না।

পাথরঘাটা উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো. মুরাদ হোসেন প্রামানিক বলেন, ওটা তিমি মাছের একটি ভিন্ন প্রজাতি। প্রাণীটির দেহের গঠন স্তন্যপায়ী তিমি মাছের মতো।

বরগুনা জেলা মৎসজীবী ট্রলার মালিক সমিতির সভাপতি গোলাম মোস্তফা চৌধুরী বলেন, বৃহস্পতিবার ভোরে শতাধিক লোকের সাহায্যে ৩০ ফিট দৈর্ঘ ৮ ফিট প্রস্থ ৯ ফিট গভীর গর্ত করে প্রাণীটি মাটিচাপা দেয়া হয়েছে।