মেইন ম্যেনু

ট্রাম্পের সঙ্গে আমার ভালো খাতির : মোদি

modi-trump-002

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি যুক্তরাষ্ট্রের নব নির্বাচিত রাষ্ট্রপতি ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে কাজ করার জন্য মুখিয়ে আছেন। ট্রাম্পের সঙ্গে বেশ খাতির রয়েছে বলেও জানান তিনি। তিনি মনে করে ট্রাম্প প্রশাসন ভারতমুখী হবে।

লোকসভা স্পিকার সুমিত্র মহাজনের আমন্ত্রণে একটি নৈশভোজে ট্রাম্পের জয় নিয়ে অনানুষ্ঠানিক মূল্যায়নে এসব কথা বলেন মোদি। প্রায় ৭৫ মিনিটব্যাপী ওই নৈশভোজে যুক্তরাষ্ট্রের সাম্প্রতিক নির্বাচনসহ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে খোলামেলা আলোচনা করেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি।

ভারতের প্রধানমন্ত্রীকে জিজ্ঞেস করা হয়েছিল তিনি কিভাবে ট্রাম্পের সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপন করবেন। তখন তিনি জানান ট্রাম্পের সঙ্গে তার ভালো খাতির আছে। দুটি দেশের মধ্যে সাম্প্রতিক দ্বিপাক্ষিক উষ্ণ সম্পর্কের মধ্যে কোনো নাটকীয় পরিবর্তন আসার কারণ দেখছেন না মোদি।

ডেমোক্রেট দলের বারাক ওবামার সঙ্গেও ভালো সম্পর্ক রয়েছে মোদির। তবে তিনি মনে করেন রিপাবলিকানরা আরও ভারতমুখী। অতীতে রিপাবলিকানরা অনেক ভারতবান্ধব ছিল বলে অভিমত তার।

নব্বইয়ের দশকের দিকে ভারত ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে তিক্ততার শুরু হয় যখন মার্কিন কূটনীতিক রবিন রাফেল জম্মু ও কাশ্মীরকে ভারত পাকিস্তানের মধ্যেকার ‘বিতর্কিত’ ভূখণ্ড হিসেবে অভিহিত করেছিলেন এবং পাকিস্তানে সামরিক সহায়তা প্রদান করেছিলেন। মোদি এ বিষয়টি নিয়ে বলতে গিয়ে বলেন, রাফেল এর সাবেক স্বামী পাকিস্তানে একটি বিমান দুর্ঘটনায় নিহত হয়। সে বিমান দুর্ঘটনায় মারা গিয়েছিলেন পাকিস্তানের তৎকালীন প্রেসিডেন্ট জিয়াউল হক। রবিন রাফেল ছিলেন প্রথম দক্ষিণ এশিয়া বিষয়ক মার্কিন সহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী যিনি ভারতের বিপক্ষে পাকিস্তানের পক্ষ নিয়েছেন।

ভারত-পাকিস্তানের মধ্যে তিক্ত কারগিল যুদ্ধের পর ২০০০ সালে ভারত সফর করেছিলেন তৎকালীন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিন্টন। তখন থেকেই মার্কিন পেণ্ডুলামটা পাকিস্তান থেকে ভারতের দিকে ঝুঁকে পড়ে বলে মনে করেন নরেন্দ্র দামোদার দাস মোদি। সূত্র: টাইমস অব ইনডিয়া