মেইন ম্যেনু

টয়লেট ব্যবহারের যে নিয়মগুলো না মানলে বিপাকে পড়বেন!

gh-2-583x350

‘বিশ্ব টয়লেট দিবস’। ২০০১ সালে সারা বিশ্বে টয়লেট ব্যবহার ও স্যানিটাইজেশন সম্পর্কে ক্যাম্পেইন শুরু করে ‌‘ওয়ার্ল্ড টয়লেট অরগানাইজেশন’। তারপর থেকে প্রতি বছর ১৯ নভেম্বর পালিত হয়ে আসছে বিশ্ব টয়লেট দিবস। এখনও আমাদের অনেকের মধ্যে টয়লেট ব্যবহারের নিয়ম ও স্যানিটাইজেশন সম্পর্কে সচেতনতার অভাব রয়েছে।

নিজের বাড়িতে টয়লেট ব্যবহারের ক্ষেত্রে সতর্ক থাকলেও পাবলিক টয়লেট যেমন- অফিস, শপিংমলে ব্যবহারের সময় আমরা অনেক কিছুই খেয়াল রাখি না। আমরা যে টয়লেট ব্যবহার করছি তা পরিষ্কার রাখা আমাদের সকলের দায়িত্ব। জেনে নিন পাবলিক টয়লেট ব্যবহারের ১০ নিয়ম-

১) টয়লেটে ঢুকে দরজা ভাল করে লক করুন। কেউ বুঝতে না পরে ভুল করে দরজা খুলে ফেললে দুজনেই অপ্রস্তুত হয়ে পড়বেন।

২) যদি টয়লেটের ভিতরে কেউ থাকে তাহলে বার বার নক করে বা দরজায় ধাক্কা দিয়ে তাঁকে বিরক্ত করবেন না। ধৈর্য ধরে অপেক্ষা করুন।

৩) খেয়াল রাখুন ব্যবহারের পর য‌েন কমোড ভেজা না থাকে। অযথা পানি ফেলে টয়লেটের মেঝে ভেজাবেন না।

৪) অনেকেরই টয়লেট ব্যবহারের পর পা ধোওয়ার অভ্যাস থাকে। কিন্তু এই সব অভ্যাস শুধু বাড়ির জন্য। পাবলিক টয়লেটে এ সব করতে গিয়ে অযথা পানি ঢেলে টয়লেটের মেঝে ভেজাবেন না।

৫) টয়লেট ব্যবহার করা হয়ে গেলে অবশ্যই ফ্লাশ করুন। যদি জল না থাকে ফ্লাশে তাহলে অ্যাটেনড্যান্টকে ডাকুন অবশ্যই।

৬) টয়লেট ব্যবহারের পর অবশ্যই অ্যান্টিসেপটিক দিয়ে হাত ধুয়ে নিন। স্যানিটাইজার ব্যবহার করতে পারেন।

৭) পাবলিক টয়লেট সকলে ব্যবহার করেন। তাই প্রয়োজনের বেশি সময় টয়েলেটে বসে থাকবেন না। ফোনে কথা বলে টয়লেট আটকে রাখবেন না।

৮) টিস্যু বা স্যানিটারি ন্যাপকিন ব্যবহারের পর কমোড বা ওয়াশ বেসিনে ফেলবেন না। এতে কমোড বা ওয়াশ বেসিনের মুখ আটকে গিয়ে পানি জমে টয়লেট নোংরা হবে।

৯) আপনার বাড়ির টয়লেট নয় বলে পানি খরচ আপনার মাথাব্যথা নয় এমনটা ভাববেন না। ওয়াশ বেসিন ব্যবহারের পর কল অবশ্যই বন্ধ করুন। অন্য কেউ কল খুলে রেখে পানি নষ্ট করলে আপনিও সমস্যায় পড়তে পারেন।

১০) টয়েলেটে বসে ধূমপান করার অভ্যাস থাকে অনেকের। এর ফলে যেমন টয়লেট নোংরা হয়, তেমনই গন্ধে অন্যদের দম বন্ধ লাগতে পারে। আবার বদ্ধ জায়গায় বসে ধূমপানের ফলে ঘটে যেতে পারে দুর্ঘটনাও।