মেইন ম্যেনু

ডিমলায় শিশু পুষ্টি সমৃদ্ধ খাবার ক্যাম্পেইনে আলোচনা সভা ও নাটিকা অনুষ্ঠিত

হামিদা আক্তার বারী, ডিমলা প্রতিনিধি ( নীলফামারী) : আজ বুধবার ২৬ অক্টোবর সকালে নীলফামীর ডিমলা উপজেলার রানী বৃন্দারানী সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে বাড়বে রুচি বুদ্ধি বল, শিশু রবে চঞ্চল এই শ্লোগানে বেসরকারী সংস্থা (ব্র্যাক)’র আয়োজনে শিশু পুষ্টি সমৃদ্ধ খাবার বিষয়ক ক্যাম্পেইনে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। পাশাপাশি পুষ্টিকণা বিষয় ভিক্তিক নাটিকা (৪৫ মিনিটি) মঞ্চত্ব করা হয়। এ সময় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ রেজাউল করিম। আলোচনা সভায় রানী বৃন্দারানী সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ আব্দুল হানিফ সরকারের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মাও. মশিউর রহমান, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আয়সা সিদ্দিকা, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ জেড এ সিদ্দিকী, উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মোঃ মোকবুল হোসেন প্রমূখ। উপস্থিত ছিলেন ব্র্যাকের নীলফামারী জেলা প্রতিনিধি মোঃ রইস উদ্দিন। অনুষ্ঠানে ব্র্যাকের ঢাকা অফিসের মোবিলাইজেশন এ্যাসোসিয়েট এ্যাডভোকেসী ফর সোসাইল চেঞ্জ এর প্রতিনিধি মিনহাজুল ইসলাম এর সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় বক্তৃতা করেন ব্র্যাকের পুষ্টি ও জনসংখ্যা প্রকল্পের ডিমলা উপজেলা ব্যবস্থাপক তন্ময় কুমার সরকার, পি.ও মোঃ জিয়াউর রহমান, পি.ও মোছা. হাওয়া বেগম, রাজু আহম্মেদ, স্বাস্থ্য সেবিকা (এস.কে) নুরছাপা প্রমূখ। এ সময় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় নির্বার্হী কর্মকর্তা মোঃ রেজাউল করিম বলেন, ব্র্যাকের এই পুষ্টিকণা বিষয়ক ক্যাম্পেইনের মাধ্যমে এলাকার সাধারণ মানুষের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধি পাবে। ফলে ভবিষৎ প্রজন্ম মেধা সম্পন্ন হয়ে সক্ষম নাগরিকে পরিণত হবে। তিনি আরো বলেন, অনুষ্ঠানে উপস্থিত শিক্ষক, সমাজ সেবক, রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব, সাংবাদিক ও সাধারণ মানুষ যদি একযোগে এই পুষ্টি বিষয়ে সচেতনতা বৃদ্ধি কল্পে কাজ করে যেতে পারি তাহলে আমরা ভবিষতে একটি সমৃদ্ধ দেশ ও জাতি উপহার দিতে পারবো। সভায় বিশেষ অতিথির বক্তৃতায় ডাঃ জেড এ সিদ্দিকী বলেনম এই পুষ্টিকণা ৫ এর উপকারীতা নিয়ে ব্যাপক আলোচনা করেন। তিনি বলেন, শিশুর খাবারের পুষ্টিমান বাড়ায়, রুচি বাড়াতে সাহায্য করে, রক্তস্বপ্লতা প্রতিরোধ করে, মানসিক বিকাশে সহায়তা করে, রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায় এবং শিশুকে সুস্থ্য ও প্রাণবন্ত থাকতে সহায়তা করে। এছাড়াও তিনি বলেন, শিশুকে ৬ মাস পূর্ন হলেই মায়ের বুকের দুধের পাশাপাশি ঘরে তৈরী পুষ্টিকর খাবার খেতে দিতে হবে। সভাপতির বক্তৃতায় রানী বৃন্দারানী সরকারী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ আব্দুল হানিফ সরকার বলেন, ৫ বছর কম বয়সী শিশুদের উপড় রক্ত স্বল্পতার ক্ষতিকর প্রভাব, প্রতিকার ও প্রতিরোধের উপায় নিয়ে শ্রেণী কক্ষে শিক্ষার্থীদেরকে শ্রেণী কক্ষেই আমাদেরকে কথা বলতে হবে। এতে করে শিশুরা এ তথ্যগুলি তাদের পরিবারেও আলোচনা করবে কিংবা আমাদের দেয়া তথ্যগুলি শিখে তারা নিজেরাও পরিবারে পুষ্টিকর খাবারে অভ্যস্ত হবে। তিনি আরো বলেন, রক্তস্বল্পতা কি, প্রতিকার ও প্রতিরোধের বিষয়টি সবাইকে জানাবার জন্য স্কুলে কিভাবে কাজ করা যায় তা নিয়ে অন্যসব শিক্ষকদের সাথে আলাপ আলোচনা করে পরিকল্পনা করা যেতে পারে। আলোচনা সভা শেষে পরিবেশন করা হয় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে নাচ ও গান। সবশেষ উপস্থিত জনতার সামনে ঢাকা থেকে এশিয়াটিক সোইসাইটির নাট্যদলের সদস্যরা একটি বিষয় ভিক্তক নাটক মঞ্চত্ব করেন ”পুষ্টিকণা পাচঁ”। নাটকের শেষ পর্বের প্রশ্নত্তোর পর্বে উপস্থিত দর্শকের মাঝে কুইজ প্রশ্ন করলে তা উত্তর দিয়ে বিজয়ীদের মধ্যে ৭ জন পুরস্কার গ্রহন করেন পুষ্টিকণা পাচঁ।