মেইন ম্যেনু

ড্রেসিংরুম ও ডাগ-আউটে নিষিদ্ধ রংপুর ম্যানেজার সানোয়ার

sanoyar20161128115717

বিপিএল শুরুর আগে রংপুর রাইডার্সকে নিয়ে বাজি ধরারই সাহস পায়নি কেউ। টুর্নামেন্ট শুরুর পর থেকেই মাঠের দুর্দান্ত পারফরম্যান্স দিয়ে তারা ইতোমধ্যেই সবার মন জয় করতে সক্ষম হয়েছেন। তবে এবার বড় একটি ধাক্কা খেলো দলটি। দলের ম্যানেজার জাতীয় দলের সাবেক খেলোয়াড় সানোয়ার হোসেনকে নিজ দলের ড্রেসিংরুম ও খেলোয়াড়দের ডাগ-আউটে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে বিপিএল কর্তৃপক্ষ।

রাজশাহী কিংসের বিপক্ষে ম্যাচ শেষেই হঠাৎ গুঞ্জন শোনা যায়, ম্যাচ-ফিক্সিংয়ের প্রস্তাব পেয়েছিলেন রংপুর রাইডার্সের খেলোয়াড় জুপিটার ঘোষ। এ নিয়ে নানা গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়ে ক্রিকেট পারায়। জুপিটার ঘোষের দাবি, তাকে ম্যাচ-ফিক্সিং করার জন্য দলের ম্যানেজার সানোয়ার হোসেন প্রস্তাব দেন। এরপর তিনি তাতে রাজি না হওয়ায় প্রস্তাব ফিরিয়ে দেন।

তবে জুপিটার ঘোষের দাবি ভিত্তিহীন উল্লেখ করে সানোয়ার হোসেন বলেন, আমি যদি তাকে এমন প্রস্তাব দিয়ে থাকি, তাহলে তা তখনই আকসুকে জানানোর কথা। এতদিন সে জানায়নি কেন। তার বিরুদ্ধে শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগ ছিল। তাই তাকে ছাঁটাই করা হয় গত ৫ নভেম্বর।

এদিকে এ অবস্থায় দলের ম্যানেজার সানোয়ারের পাশে দাঁড়িয়েছে রংপুর কর্তৃপক্ষ। এ নিয়ে দলটি একটি বিবৃতিও দিয়েছে। লিখিত বিবৃতিতে দলটি উল্লেখ করে, দলের শৃঙ্খলা রংপুরের মূল ভিত্তি। যার জন্যই রংপুর রাইডার্স এতো ভালো করছে। জুপিটার ঘোষের মধ্যে শৃঙ্খলার যথেষ্ট অভাব ছিল। দলের শৃঙ্খলা ঠিক রাখার জন্য জুপিটারকে দল থেকে ছাঁটাই করেছে রংপুর রাইডার্স ম্যানেজমেন্ট। আর তাই সে এবার ম্যাচ-ফিক্সিংয়ের সঙ্গে রংপুরকে জড়ানোর চেষ্টা করছে। একইসঙ্গে ম্যাচ-ফিক্সিংয়ের অভিযোগকে মিথ্যা, বানোয়াট ও ভিত্তিহীন হিসেবে আখ্যা দিয়ে এর তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছে রংপুর রাইডার্স কর্তৃপক্ষ।

এদিকে রংপুর কর্তৃপক্ষ দলের ম্যানেজার সানোয়ারকে সমর্থন জানানোর পরও বিসিবি কেন তাকে নিষিদ্ধ করলো এমন প্রশ্নের জবাবে, বিসিবির মিডিয়া কমিটি ও বিপিএলের টেকনিক্যাল কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস জানান, ‘অভিযোগ সত্য, মিথ্যা কিংবা ভিত্তিহীন যাই হোক না কেন, যেহেতু তার নাম উঠে এসেছে, তা আমরা (বিপিএল কর্তৃপক্ষ) বিষয়টি আমলে নিয়েছি। এবং বিপিএলকে কলঙ্কমুক্ত রাখতেই বিষয়টির সুষ্ঠু তদন্ত প্রয়োজন। আমরা তা করবোও। আর তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত তাকে ড্রেসিংরুম ও ডাগ-আউটে নিষিদ্ধ করা হয়েছে।’ তবে কবে তদন্ত শুরু হবে, তা তিনি জানাতে পারেননি।

উল্লেখ্য, রংপুরের ম্যানেজার সানোয়ার হোসেনকে ড্রেসিংরুম ও ডাগ-আউটে নিষিদ্ধ করা হলেও দলের খেলোয়াড়দের সঙ্গে তিনি মাঠে আসতে পারবেন এবং স্টেডিয়ামে বসে খেলা দেখতে পারবেন।