মেইন ম্যেনু

ঢাকার নিম্ন আদালতে আসামির আত্মহত্যার চেষ্টা

আদালত থেকে আসামি পালানোর ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই এবার ঢাকার নিম্ন আদালতে ডাকাতির ঘটনায় দায়ের করা মামলার এক আসামি আত্মহত্যার চেষ্টা করেছ্নে। তার নাম স্বপন।

শনিবার বিকেল পৌনে ৩টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ওই আসামির দুই হাতে থাকা হ্যান্ডকাপ দিয়ে নিজেই নিজের গলা কাটার চেষ্টা করেন বলে জানিয়েছে রামপুরা থানা পুলিশ। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রামপুরা থানার ইন্সপেক্টর (অপারেশন) মুস্তাফিজুর রহমান।

তিনি বলেন, গত ১৪ নভেম্বর রামপুরা এলাকায় ডাকাতির অভিযোগে রামপুরা থানায় দায়ের করা একটি মামলায় গ্রেফতার করা হয় স্বপনকে। মামলা নং ১১। গ্রেফতারের পর আজ দুপুরে ঢাকার নিম্ন আদালতে নেয়া হয় তাকে।

ইন্সপেক্টর মুস্তাফিজুর জানান, স্বপনকে বাথরুমে যাওয়ার সুযোগ দেয়া হয়। কিন্তু তিনি বাথরুমে ঢুকে দুই হাতে লাগানো হ্যান্ডকাপ দিয়ে গলা কাটার চেষ্টা করেন। দেরি হওয়ায় ভেতরে প্রবেশ করে স্বপনকে উদ্ধার করা হয়।

রামপুরা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) প্রলয় কুমার সাহা জানান, গলায় রক্ত জমাট বাঁধা দেখে তাকে দ্রুত ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়েছে।