মেইন ম্যেনু

তিনজন মিলে ১ সন্তানের জন্ম দিতে পারবেন!

এখন থেকে তিনজন মিলে একটি শিশুর জন্ম দিতে পারবেন বলে জানালেন যুক্তরাজ্যের বিজ্ঞানীরা।

‘থ্রি পেরেন্ট’ পদ্ধতিতে সন্তান জন্মদানের পদক্ষেপ গত বছর যুক্তরাজ্যে বৈধতা দেয়া হলেও বাস্তবায়ন হবে আগামী মাস থেকে।

নতুন প্রযুক্তিকে এই প্রযুক্তি ব্যবহার করে বিরল জেনেটিক ত্রুটি মায়েরাও আইভিএফ প্রক্রিয়ার সময় অন্য নারীর সঙ্গে তার ত্রুটিপূর্ণ মাইটোকন্দ্রিয়াল ডিএনএ প্রতিস্থাপন করে সুস্থ-সবল শিশুর জন্ম দিতে সক্ষম হবেন বলে জানান গবেষকরা।

তারা জানান, যার শরীরে মাইটোকন্ড্রিয়াজনিত কোনো ত্রুটি নেই৷ আসলে ভ্রুণের মাইটোকন্ড্রিয়ায় ত্রুটি থাকলে হৃৎপিণ্ড, যকৃত, চোখ, পেশিতন্ত্র বা মস্তিষ্কে বড় ধরনের জটিলতা বা অসুস্থতা নিয়ে জন্ম নিতে পারে একটি শিশু৷

আর এই ‘থ্রি পেরেন্ট ইন ভিট্রো ফার্টিলাইজেশন’ বা ‘থ্রি পেরেন্ট আইভিএফ’ পদ্ধতিতে একজন দাতা সুস্থ্য নারীর সহায়তায় আইভিএফ মায়ের ডিম্বাণুর ত্রুটিপূর্ণ প্যাকগুলি সরিয়ে সুস্থ ভ্রুণের মাইটোকন্ড্রিয়া প্রতিস্থাপন করা যায়৷

ইতোমধ্যে দেশটির সংসদ বির্তকিত এ পদ্ধতিটি বৈধ করে। এর আগেও ‘থ্রি পেরেন্ট’ পদ্ধতিতে মেক্সিকোতে একটি সুস্থ শিশুর জন্ম হয়েছে। এটাই এ পদ্ধতির সফলতা প্রমাণ করে।

অধ্যাপক রবিন লভেল বলেন, এটি আমাদের জন্য খুবই বড় একটি সুখবর। এটি চিকিৎসা শাস্ত্রে বৈপ্লবিক পরিবর্তন নিয়ে আসবে।

তিনি বলেন, আমরা চেষ্টা করবো ভালো কিছু করার। আমাদের এ পদ্ধতিতে আরো কিছু শিশু জন্মানো পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে এবং সাবধানতার সঙ্গে তা বিচারও করতে হবে।

এক্ষেত্রে মাইটোকন্দ্রিয়াল রোগে আক্রান্ত একজন নারীর ডিম্বাণু থেকে গুরুত্বপূর্ণ সব ডিএনএ এর সঙ্গে অন্য সুস্থ নারীর মাইটোকন্দ্রিয়াল ডিএনএ বাবার শুক্রাণু দিয়ে একসঙ্গে নিষিক্ত করা হয়। এবং একমাত্র এই উপায়েই ওই দম্পত্তি একটি সুস্থ সন্তান জন্ম দিতে পারবেন।