মেইন ম্যেনু

তিন সন্তানকে নিয়ে বাবার ইসলাম গ্রহণ

43535-1

স্বামীর বিরুদ্ধে একতরফাভাবে তিন শিশু সন্তানকে ইসলামে ধর্মান্তরিত করার অভিযোগ এনেছেন ইন্দিরা গান্ধী নামে এক হিন্দু নারী। আগামী ১৪ নভেম্বর এ বিষয়ে বৈধতার উপর মালয়েশিয়ার ফেডারেল কোর্টে শুনানি অনুষ্ঠিত হবে।

দেশটির সিনিয়র ফেডারেল কাউন্সিল সদস্য শামসুল বুলশান জানান, আপিলের শুনানির জন্য আগামী ১৪ ও ১৫ নভেম্বর নির্ধারণ করা হয়েছে।

মামলাটি কার্যধারার জন্য আজ বুধবার ফেডারেল কোর্টের সিনিয়র সহকারী রেজিস্ট্রার মোহাম্মদ নূর ফেরদৌস রোসলি এ তারিখ নির্ধারণ করেন।

মামলায় মালয়েশিয়ার সরকার ও শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধিত্ব করছেন শামসুল বুলশান। এ আপিল আবেদনের শুনানিতে বুলশানও বিবাদীদের একজন।

আদালতে উপস্থিত ছিলেন ইন্দিরা গান্ধীর আইনজীবী অ্যাস্টন পাইভা। তার প্রাক্তন স্বামী মুহাম্মদ রেদোয়ান আব্দুল্লাহর পক্ষে

আইনজীবী হাতেম মুসা এবং মালয়েশিয়া সরকার ও ধর্মান্তর বিষয়ক রেজিস্ট্রার ও ইসলামী ধর্মীয় বিভাগের প্রতিনিধি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রতিষ্ঠানটির পরিচালক সহকারী আইন উপদেষ্টা সুহাইলা হেরন।

এদিকে, ইন্দিরা গান্ধীর আইনজীবী অ্যাস্টন জানান, আপিল শুনানির জন্য নয় সদস্যের একটি বেঞ্চে আবেদন করেছেন এবং বিষয়টি রেজিস্ট্রারারকে অবহিত করেছেন।
আপীল শুনানিতে ফেডারেল কোর্ট তিনটি আইনি প্রশ্নের উপর জোড় দিচ্ছেন। এর মধ্যে অন্যতম হচ্ছে শিশুদেরকে ইসলামে ধর্মান্তরের সার্টিফিকেট ইস্যু করার পূর্বে বাবা-মায়ের সম্মতির ব্যাপারটি।

৪১ বছর বয়সী ইন্দিরা গান্ধী একটি কিন্ডারগার্টেনের শিক্ষক। তার তিন সন্তানের মধ্যে দুই মেয়ে ও এক ছেলে রয়েছে। বর্তমানে তাদের বয়স যথাক্রমে ১৮, ১৭, এবং ৮ বছর।

২০০৯ সালের এপ্রিলে ইন্দিরা গান্ধীর অনুমতি ছাড়াই তার স্বামী শিশুদেরকে ইসলামে ধর্মান্তরিত করেন। এর আগে মুহাম্মদ রেদোয়ান আব্দুল্লাহও ইসলামে ধর্মান্তরিত হন। ধর্মান্তরিত হওয়ার পূর্বে তার নাম ছিল কে.পাথমানাথন। ধর্মান্তরিত করার সময় শিশুদের বয়স ছিল যথাক্রমে ১২, ১১ বছর এবং ১১ মাস।

ওই শিশুদেরকে তাদের পিতা মুহাম্মদ রেদোয়ানের হেফাজতে রাখার রায় দিয়েছিল মালয়েশিয়ার শরিয়া আদালত।

পরে ইন্দিরা গান্ধী তিন সন্তানের ধর্মান্তরের সার্টিফিকেট বাতিলের জন্য গত বছরের ৩০ ডিসেম্বর মালয়েশিয়ার ইপহ সিভিল হাইকোর্টে আপিল দায়ের করেন।

পরে ওই আদালত ২-১ সংখ্যাগরিষ্ঠ মতে শরিয়া আদালতের রায় খারিজ করে দেয়। এতে বলা হয়, শিশুদের মা অমুসলিম হওয়ায় হেফাজতের বিষয়টি মঞ্জুর করার অধিকার শরিয়া আদালতের এখতিয়ার বর্হিভূত।

চলতি বছরের ১৯ মে ইন্দিরা গান্ধীর লিভ টু আপিল মঞ্জুর করে ফেডারেল কোর্ট।