মেইন ম্যেনু

দুই জেলায় ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত পাঁচ

bonduk

দুই জেলায় পৃথক ‘বন্দুকযুদ্ধে’ পাঁচজন নিহত হয়েছেন। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর দাবি অনুযায়ী পাঁচজনই ডাকাত দলের সদস্য। এদের মধ্যে কুষ্টিয়ার মিরপুরে পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে দুইজন এবং চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ তিন ডাকাত নিহত হয়েছেন।

শুক্রবার দিবাগত রাত পৌনে একটার দিকে মিরপুর উপজেলার গোবিন্দগুনিয়া এলাকায় পুলিশের সঙ্গে বন্দুকযুদ্ধে দুই ডাকাত নিহত হয়েছেন। নিহতদের ডাকাত বলে দাবি করলেও তাদের নামপরিচয় জানাতে পারেনি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীটি।

পুলিশের ভাষ্য, রাতে গোবিন্দগুনিয়া এলাকায় রাস্তায় গাছের গুঁড়ি ফেলে বিভিন্ন যানবাহনে ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছিল বেশ কয়েকজন। এসময় পুলিশের একটি টহলদল সেখানে পৌঁছায়। টহল দলের নেতৃত্ব দেন মিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কাজী জালাল উদ্দিন। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে ডাকাতরা তাদের লক্ষ্য করে গুলি ও বোমা ছোড়ে। আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। একপর্যায়ে অধিকাংশ ডাকাত পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়। পরে ঘটনাস্থলে দুইজনের গুলিবিদ্ধ মরদেহ দেখতে পায় পুলিশ। এছাড়া বন্দুকযুদ্ধের পর সেখানে থেকে আগ্নেয়াস্ত্র ও গুলি উদ্ধার করা হয়েছে বলে দাবি করে পুলিশ।

কুষ্টিয়ার সহকারী পুলিশ সুপার কামরুল ইসলাম জানান, নিহতদের নামপরিচয় জানার চেষ্টা চলছে। মরদেহ দুটি কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এদিকে চট্টগ্রামের মিরসরাই উপজেলার নিজামপুর এলাকায় র‌্যাবের সঙ্গে আরেকটি বন্দুকযুদ্ধের ঘটনায় তিন ডাকাত নিহত হয়েছেন। শুক্রবার দিনগত রাত তিনটার দিকে র‌্যাব-৭ এর সঙ্গে এই বন্দুকযুদ্ধ হয়।

মিরসরাই থানার উপপরিদর্শক শফিকুল ইসলাম বন্দুকযুদ্ধের সত্যতা নিশ্চিত করলেও নিহতদের নামপরিচয় জানাতে পারেননি।