মেইন ম্যেনু

নতুন যে সুবিধা আনল ভাইবার

Viber

ভাইবারে বেশ কিছু নতুন ফিচার যুক্ত হয়েছে।অ্যান্ড্রয়েড ও আইওএস ব্যবহারকারীদের জন্য ভাইবার অ্যাপ্লিকেশনটির একটি হালনাগাদ সংস্করণ (পাঁচ দশমিক পাঁচ) উন্মুক্ত করেছে ভাইবার কর্তৃপক্ষ। এ সংস্করণে বেশ কিছু নতুন ফিচার ব্যবহারের সুবিধা পাওয়া যাবে।

ভাইবারের পণ্য বিভাগের প্রধান অফির আইয়াল বলেন, ‘ভাইবার ব্যবহারকারীদের প্রতিক্রিয়া শুনে আমরা জেনেছি যে, তাঁরা বার্তা আদান-প্রদানের বাইরেও অনেক কাজে এটা ব্যবহার করেন।’

আইয়াল আরও বলেন, অ্যান্ড্রয়েড ও আইওএসে নতুন হালনাগাদ আনার ফলে ব্যবহারকারীরা বার্তা আদান-প্রদানের পাশাপাশি কনটেন্ট বিনিময়ের ক্ষেত্রেও বাড়তি সুবিধা পাবেন। নতুন সংস্করণে ভয়েস কলের মান আরও উন্নত হয়েছে। এ ছাড়াও ভিডিও কলের ইন্টারফেসকেও উন্নত করা হয়েছে। যুক্ত হয়েছে অ্যানিমেটেড স্টিকার সুবিধা।

আইয়াল বলেন, বিশ্বজুড়ে ভাইবার ব্যবহারকারী বাড়ছে। ব্যবহারকারীদের সুবিধার্থে ও তাদের ধরে রাখতে নানা সুযোগ-সুবিধা বাড়িয়ে চলেছি আমরা।

ভাইবারে নতুন যা এল:-

কন্টাক্ট ও কনটেন্ট বিনিময়:
ভাইবারের নতুন হালনাগাদ সংস্করণে ব্যবহারকারীরা এখন ভাইবার মেসেজ আকারে ফোনবুক থেকে কন্টাক্ট বিনিময় করতে পারবেন। প্রাপক এখন তথ্য হিসেবে নাম, ছবি ও তথ্য গ্রহণ করে সহজেই তার কন্টাক্ট লিস্টে তা সংরক্ষণ করতে পারবেন। এ ছাড়াও কাউকে যখন চ্যাটে লিংক বা ইউআরএল শেয়ার করা হবে তখন সেই লিংকটি কোন সাইটের তার একটি ছবিসহ ‘বাবল’ দেখা যাবে। এতে ওই লিংকটি শেয়ার করার হার আরও বাড়বে।

সহজে ভিডিও কল:
ভাইবারে এখন প্রতি মাসে পঁচিশ কোটি ভিডিও কল করা হচ্ছে। নতুন হালনাগাদ সংস্করণটিতে ভিডিও কল ইন্টারফেসটিকে ঢেলে সাজিয়েছে ভাইবার। এখন রিসেন্ট কল লিস্ট বা কন্টাক্ট প্রোফাইল থেকে সরাসরি ভিডিও কল করা যাবে।

এ ছাড়াও কম ডেটা খরচে উন্নত ভয়েস ও ভিডিও কল করার সুবিধাও যুক্ত করেছে ভাইবার। নেটওয়ার্ক অনুসারে ভাইবার স্বয়ংক্রিয়ভাবে ডেটা ব্যবহারের হার কমিয়ে দিতে সক্ষম হবে। এক মিনিট অডিও কলের ক্ষেত্রে ফোরজি বা ওয়াই-ফাই নেটওয়ার্কে সর্বোচ্চ ৪১৬ কিলোবাইট ডেটা, থ্রিজি নেটওয়ার্কে ১৫১ থেকে ২৫৫ কেবি ও টুজি নেটওয়ার্কে ৮৪ কেবি ডেটা ব্যবহার করে ভাইবার।

অ্যানিমেটেড স্টিকার:
ভাইবারের নতুন হালনাগাদ সংস্করণে ৫০০ স্টিকার প্যাক যুক্ত হয়েছে। এই স্টিকারগুলো অ্যান্ড্রয়েড ও আইওএস প্ল্যাটফর্মের ব্যবহারকারীরা বার্তা-আদান প্রদানের সময় ব্যবহার করতে পারবেন।

উইন্ডোজ, ম্যাক, আইপ্যাড ও অ্যান্ড্রয়েড ট্যাবে ভাইবার:
অ্যান্ড্রয়েড ও আইফোনের জন্য পাঁচ দশমিক পাঁচ হালনাগাদ সংস্করণটি ছাড়াও অন্যান্য ডিভাইসের জন্যও নতুন ফিচার হালনাগাদ করেছে ভাইবার। আইপ্যাডের জন্য উন্মুক্ত করার নতুন সংস্করণের ভাইবার ব্যবহারকারীরা তাঁদের আইফোন, আইপ্যাড ও ম্যাকে ভাইবার সিনক্রোনাইজ করে নিতে পারবেন এবং সব প্ল্যাটফর্মেই চ্যাট চালিয়ে যেতে পারবেন। এ ছাড়াও ভাইবারের নতুন সংস্করণে অ্যান্ড্রয়েড ট্যাবের ইন্টারফেসটিকে আরও ব্যবহারবান্ধব করেছে ভাইবার।