মেইন ম্যেনু

নাম করা ভারতীয় এই ক্রিকেটার জানালেন, তার যৌন উত্তেজক ঔষধের দরকার পড়ে না

image-1

ঠিক তেমনই ভারতের প্রাক্তন উইকেটকিপার ফারুখ ইঞ্জিনিয়ার সম্পর্কে সোমবার রটে যায়, তিনি মারা গিয়েছেন। সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমেই খবরটি ছড়িয়ে পড়ে। আর এমন খবর রটে যাওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই ক্রিকেটজগতে নেমে আসে শোকের ছায়া। ক্রিকেটের সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিবর্গ ফারুখ ইঞ্জিনিয়ারকে ফোন করতে শুরু করে দেন। ফারুখ ইঞ্জিনিয়ার এখন আর ভারতে থাকেন না। তিনি ম্যাঞ্চেস্টারে থাকেন। শুধুমাত্র ভারত নয়, বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ফোন আসে ফারুখ ইঞ্জিনিয়ারের কাছে। ভারতের প্রাক্তন এই ক্রিকেটার সেই ফোনগুলো ধরতে পারেননি।

image-2

এক সংবাদমাধ্যমে ভারতের এই প্রাক্তন ক্রিকেটার জানিয়েছেন, অন্তত একশো জন তাঁকে ফোন করেছিল। ইঞ্জিনিয়ারের বয়স এখন ৭৮ বছর। এই প্রজন্ম ফারুখ ইঞ্জিনিয়ারের নামও হয়তো শোনেনি। পুরনো দিনের মানুষরা জানেন ফারুখ ইঞ্জিনিয়ার প্রসঙ্গে।

ইঞ্জিনিয়ারের এক বন্ধু গুজব শুনেই ফোন করেছিলেন ভারতের প্রাক্তন এই উইকেটকিপারকে। ফারুখ ইঞ্জিনিয়ার সেই বন্ধুর ফোন ধরেন। প্রবল বিস্মিত সেই বন্ধুটি ফোনেই প্রশ্ন ছুড়ে দেন, ‘তুমি ফারুখ ইঞ্জিনিয়ার তো?’ পাল্টা দেন রসিক ইঞ্জিনিয়ারও। ‘তুমি আমার ভূতের সঙ্গে কথা বলছ,’ জবাবে বলেন ভারতের প্রাক্তন এই ক্রিকেটার। এ হেন ফারুখ ইঞ্জিনিয়ার একটি সংবাদমাধ্যমের মাধ্যমে তাঁর সকল শুভানুধ্যায়ীর উদ্দেশে বার্তা পাঠান, ‘বন্ধুরা, আমি জীবিত। ভালই আছি। বেশ হেঁটেচলে বেড়াচ্ছি। আর একটা কথা সবাইকে বলতে চাই। ৭৮ বছর বয়সেও আমার ভায়াগ্রার দরকার পড়ে না।’