মেইন ম্যেনু

নারায়ণগঞ্জবাসী সঠিক সময়ে সঠিক সিদ্ধান্ত নেবে : আইভী

নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন (নাসিক) নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী বলেছেন, ‘পৌরসভায় ৮ বছর এবং সিটি কর্পোরেশনে ৫ বছর মিলিয়ে মোট ১৩ বছর আমি দলমত-নির্বিশেষে সবার জন্য কাজ করেছি। কখনো প্রশ্ন করিনি কে কোন দল করে বা কে কার লোক। উন্নয়নের স্বার্থে আমি সব সময় নিরপেক্ষ ছিলাম। আমি কারো কোনো পরিচয় নিয়ে কোনো উন্নয়নকাজ করিনি। উন্নয়নের জন্যই আমি নিরলস কাজ করে গেছি। আমার এ উন্নয়নকৃত রাস্তাঘাট আওয়ামী লীগ-বিএনপি সবাই ব্যবহার করছে। অতএব আমি বিশ্বাস করি, যে দলমত-নির্বিশেষে সবাই নৌকার প্রার্থীকে বিজয়ী করবে।’

বিজয়ের মাস ডিসেম্বর উপলক্ষে বৃহস্পতিবার (১ ডিসেম্বর) বিকেল ৪টায় সিদ্ধিরগঞ্জে নাসিক ৮নং ওয়ার্ডে সদর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ড কার্যালয়ে সব শহীদ ও প্রয়াত মুক্তিযোদ্ধার স্মরণে মিলাদ ও দোয়া অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

এক প্রশ্নে জবাবে আইভী বলেন, ‘উন্নয়ন করেছি জনগণের জন্য। কথা বলেছি নারায়ণগঞ্জবাসীর জন্য। এ উন্নয়নই আমার এক মাত্র ভরসা। তাই নারায়ণগঞ্জবাসীর প্রতি আমার আস্থা রয়েছে, তারা সঠিক সময় সঠিক সিদ্ধান্ত নেবে।’

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে আইভী বলেন, ‘প্রতীক পাওয়ার পর আমার নির্বাচনের প্রচারণা শুরু হবে। এরপর বোঝা যাবে নির্বাচনের পরিবেশ কেমন আছে। এর আগে কিছুই বলা যাবে না। একটা নির্বাচন করতে হলে, যে ধরনের আইনশৃঙ্খলা প্রয়োজন, নির্বাচন কমিশন সে ধরনের প্রস্তুতি নেবে। প্রচারণার পর যদি দেখি নির্বাচনের কোনো বিঘ্ন ঘটবে, তখন আইনশৃঙ্খলার বিষয়ে কথা বলব।’

আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী আইভী আরো বলেন, ‘আমি সবাইকে নিয়ে নির্বাচন করব। আওয়ামী লীগের সব নেতাকর্মী আমার পাশে আছে। তারা সবাই মিলে নৌকার জন্য মাঠে নেমে কাজ করবে। নারায়ণগঞ্জে আওয়ামী লীগের মধ্যে কোনো বিভেদ নেই। সবাই এক আছে, এক থাকবে।’

তিনি আরো বলেছেন, ‘উন্নয়ন দিয়ে জনগণের পাশে যাওয়া যায়, তাদের সুখ-দুঃখের কথা শোনা যায়। তারপরই উন্নয়নের রূপ রেখা তৈরি করা হয়। আমি ৫টি বছর সে কাজটি করেছি। এখন পরীক্ষার পালা এসেছে। দেখি সিটিবাসীর ভালোবাসা নিয়ে সে পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে পারি কি না।’

অনুষ্ঠানে সদর উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মুক্তিযোদ্ধা শাহজাহান ভূঁইয়া জুলহাসের সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন মুক্তিযোদ্ধা এহসান কবীর রমজান, মুক্তিযোদ্ধা নূর হোসেন মোল্লা, মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মতিন, মুক্তিযোদ্ধা মজিদ সাউদ, মুক্তিযোদ্ধা মহিউদ্দিন মোল্লা প্রমুখ।