মেইন ম্যেনু

‘নিজের অস্তিত্বকে অস্বীকার করেছেন শাকিব খান’

1480597051

‘প্রিয়া আমার প্রিয়া’ ছবির মাধ্যমে বাংলা চলচ্চিত্রে শক্ত অবস্থা তৈরি করেন ঢাকাই ছবির নায়ক শাকিব খান। ছবিটি পরিচালনা করেন বদিউল আলম খোকন। এর আগে এই পরিচালকের আরো ৩ টি ছবিতে অভিনয় করেন শাকিব। প্রথম ছবি ‘ধর শয়তান’ এ মূল নায়কের ভূমিকায় অভিনয় করেন আলেকজান্ডার বো। শাকিব এই ছবিতে দ্বিতীয় নায়কের ভূমিকায় অভিনয় করেন। সম্প্রতি বদিউল আলম খোকন, শাকিব খানকে নিয়ে আর ছবি করবেন না বলে ঘোষণা দিয়েছেন। এই গুণী পরিচালকের সাথে কথা বলেছেন মাহতাব হোসেন

আপনি নাকি শাকিব খান নিয়ে ছবি করবেন না?

হ্যাঁ ঠিকই শুনেছেন। শাকিব খান একজন ভালো অভিনেতা কিন্তু তাঁকে নিয়ে আর ছবি করবো না।

কেন এই সিদ্ধান্ত?

যদি কোনো সন্তান তাঁর মা-বাবাকে অস্বীকার করে তাহলে মা-বাবা সেই সন্তানকে কিভাবে আগলে রাখবে!

একটু ক্লিয়ার করবেন?

শাকিব এখন তথাকথিত জয়েন্ট ভেঞ্চার ছবি নিয়ে ব্যস্ত। এখন শাকিব বলে এদেশে নাকি ভালো টেকনিশিয়ান নেই। যে ইন্ডাস্ট্রি তাঁকে জন্ম দিল সেই ইন্ডাস্ট্রিকে সে অস্বীকার করে। তাঁকে নিয়ে তো আমরা আর কাজ করতে পারি না। যে টেকনিশিয়ানদের পরিশ্রমের ফলে শাকিভব দু;হাতে রোজগার করেছে, গুলশানে বাড়ি গাড়ি করেছে এখন সেই টেকনিশিয়ানদের সে অস্বীকার করে।

আপনি বলতে চান এদেশে ভালো টেকনিশিয়ান আছে?

অবশ্যই আছে। এদশে ভালো ছবি হয় নি? এদেশের ছবি আন্তর্জাতিক মানের হয় নি? এদেশে কি জহির রায়হান, এহতেশাম ছিলেন না? এখন ইকুইপমেন্টস না থাকাটা আলাদা জিনিস। আপনারা কম্পিউটারে কাজ করছেন। এখন পাঁচজন সাংবাদিককে যদি একটি কম্পিউটারে কাজ করতে দেয়া হয় তাহলে কীভাবে হয় বলেন? নিজের স্বার্থ দেখে ভারতের ছবির এজেন্ট হয়ে গেছে। সে বেশি স্মার্ট হতে গিয়ে নিজের জন্ম, পরিচয় ভুলতে বসেছে। একের পর এক ঘটনা ঘটিয়ে ইন্ডাস্ট্রিকে অস্থির করছে।

আচ্ছা আপনি যৌথ প্রযোজনার ক্ষেত্রে ‘তথাকথিত’ বলেছেন?

হ্যাঁ অবশ্যই তথাকথিত। যৌথ প্রযোজনার নামে প্রতারণা করা হচ্ছে। যৌথ প্রযোজনার নিয়ম হচ্ছে ফিফটি ফিফটি। টেকনিশিয়ান, কলাকুশলী সবকিছুই অর্ধেক অর্ধেক। কিন্তু সেসব কি মানা হয়? শিল্পী সমিতির সভাপতি শাকিব, সে এই বিষয়ে কোনো কথা বলে? সে নিজের স্বার্থে কাজ করে যাচ্ছে। শাকিব নিজের অস্তিত্বকে স্বীকার করতে ভুলে গেছে।

তাহলে আপনি বলছেন এদেশে ভালো ছবি নির্মাণ সম্ভব?

অবশ্যই সম্ভব। আপনি আমার হিরো দ্য সুপারস্টার ছবিটা দেখুন তারপরে বলুন। আমরা চাইলে মুম্বাইকে টেক্কা দিতে পারবো। আমাদের দরকার বাজেট এবং ইকুইপমেন্টস। তাহলে দেখবেন আমরা কি করি, আর কি না করি। আমাদের ছবির মান সম্পর্কে তখন আপনি সমালোচনা করার সুযোগ পাবেন।

শাকিবের সাথে আপনার কোনো দ্বন্দ্ব রয়েছে?

মোটেও না। শাকিব একজন অভিনেতা হিসেবে আন প্যারালাল। তার সাথে আমার ব্যক্তিগত দ্বন্দ্বের জায়গা নেই। কিন্তু এই ইন্ডাস্ট্রি আমাকে যেটা দিয়েছে সেটা আমি অস্বীকার করবো কিভাবে?

শাকিব অস্বীকার করছেন?

অস্বীকার নয়তো কি? শাকিবকে আমি ১০- হাজার দিয়ে সাইনিং মানি দিয়েছি ছবির নাম ছিল জানের জান। আবার আমিই দিয়েছি ৩৫ লাখ। ছবির নাম একবার বলো ভালোবাসি। সেই শাকিব এখন আমাদের বলো এখানে ভালো কোনো টেকনিশিয়ান নেই, এক কোটি চেয়ে বসে। এখানে নাকি সব ব্যাকডেটেড ৭০ দশকের টেকনিশিয়ান।

শাকিব খানের আজকের শাকিব হওয়ার পেছনে আপনার ভূমিকা কতটুকু?

আমার ভূমিকার কথা আমি বলবো না। তবে শাকিব খানের আজকের শাকিব খানের উত্থানের পেছনে ভূমিকা রয়েছে সোহানুর রহমান সোহান, এফ আই মানিক, পিএ কাজল। আমার কতটুকু ভূমিকা তা ইন্ডাস্ট্রির অন্যরা বলতে পারবে।

শাকিবকে নিয়ে যেহেতু ছবি করবেন না তাহলে শাকিবের বিকল্প পাবেন কোথায়?

বিকল্প পাবো কোথায় এটা এভাবে বলা যায় না। সবকিছুর বিকল্প তৈরি হয়ে যায়। আমি আগেই বলেছি শাকিব খান একজন ভালো অভিনেতা। সে যদি ১০০ হয়, তবে এখনকার অন্য নায়কেরা ধরেন ২০ কিংবা ৫০ কিংবা ৬০। এই যে শাকিব খানের সাথে তাদের পার্থক্য, এই পার্থক্য ঘুঁচাতে পরিশ্রম করতে হবে। একজন শাকিব খানের বিকল্প তৈরি হওয়াতো কঠিন কিছু না।

বর্তমানে আপনি সম্ভাবনাময় অভিনয় শিল্পী হিসেবে কাদের দেখছেন?

সাইমন সাদিক, বাপ্পী চৌধুরী, আরেফিন শুভ, নিরব, পরীমনি, মাহিয়া মাহি, মিম। এরা ভালো করবে। তবে একটা বটি যেমন ফেলে রাখলে ধার কমে যায়, নিয়মিত ধার দিতে হয়। এদেরও নিয়মিত যত্ন নিতে হবে তাহলেই এরা অপরিহার্য হয়ে উঠবে।-কালের কণ্ঠ