মেইন ম্যেনু

নির্বাচনের পর কেন আমেরিকানরা সেফটি পিন পরছেন?

সম্প্রতি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে দেশটির ৪৫ তম রাষ্ট্রপতি হিসেবে নির্বাচনে জিতেছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। আর এ নির্বাচনের পর থেকে অনেক মার্কিনি সেফটি পিন পরিধান করছে। এক প্রতিবেদনে বিষয়টি জানিয়েছে এসএমএইচ।

অনেকেরই প্রশ্ন, তবে কী ট্রাম্প বিরোধীতা করেই মার্কিনিরা সেফটি পিন পরছে? না, ঠিক ট্রাম্প বিরোধীতা নয়। এর পেছনে রয়েছে ভিন্ন কারণ।

নির্বাচনের আগেই ট্রাম্প তার নীতি সম্পর্কে বহু বিষয় জানিয়ে দিয়েছেন। আর এসব নীতির মধ্যে রয়েছে অভিবাসী ও অন্যান্য সংখ্যালঘুদের বিতাড়িত করা। এ বিষয়টির বিরোধীতাই করছেন সেফটি পিন পরিধানকারীরা। তারা অভিবাসী ও সংখ্যালঘুদের সঙ্গে সংহতি প্রকাশ করার জন্যই পরছেন এ সেফটি পিন।

সম্প্রতি ট্রাম্প নির্বাচিত হওয়ার পর থেকেই মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন শহরে ট্রাম্পবিরোধী বিক্ষোভ হচ্ছে। এ বিক্ষোভে প্রায় ২৫টি শহরে কমবেশি প্রভাবিত হয়েছে। আর এ বিক্ষোভেই একে অন্যকে সংহতি জানানোর জন্য সেফটি পিন পরতে উৎসাহিত করা হচ্ছে।
শুধু অভিবাসীই নয়, নারীদের প্রতিও ট্রাম্পের বিরূপ মন্তব্য রয়েছে। আশঙ্কাতে রয়েছেন সমকামীরাও। আর এ কারণে তাদের সঙ্গে সংহতি প্রকাশের জন্যও এ সেফটি পিন পরিধান করা হচ্ছে।

রাস্তা-ঘাট, অফিস-আদালতে সেফটি পিনধারীরা একে অন্যকে দেখলেই চিনতে পারছেন। নিজেরা মতবিনিময়ের সুযোগ পাচ্ছেন। আর এ বিষয়টিই চাচ্ছেন সেফটি পিন ধারীরা।